লাদাখে নতুন করে সীমানা তৈরির দাবি চিনের, সেনাকর্তাদের বৈঠকে মেলেনি সমাধানসূত্র

Mysepik Webdesk: লাদাখ সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহার করা নিয়ে দু’দেশের মধ্যে যে উত্তেজনাপূর্ণ পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে, তা কিছুটা কমানোর উদ্দেশ্যে মঙ্গলবার সীমান্তের ওপারে মালডোতে ক্রপ কম্যান্ডার পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল। কিন্তু প্রতিবারের মতোই এবারেও সেই বৈঠকে কোনও চূড়ান্ত সমাধানসূত্র বেরোয়নি। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সূত্রে জানা গেছে এমনটাই।

আরও পড়ুন: ভারতের পর ধাক্কা আমেরিকার, বিনিয়োগকারীদের তালিকা থেকে বাদ পড়ল দুই চিনা সংস্থা

মঙ্গলবার মালডোতে ওই বৈঠকে ভারতীয় সেনার পক্ষ থেকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ১৪ নম্বর কোরের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল হরিন্দর সিং। অন্যদিকে চিনের তরফ থেকে পিপলস লিবারেশন আর্মির দক্ষিণ জিনজিয়াং মিলিটারি রিজিয়নের কম্যান্ডার জেনারেল লিউ লিন উপস্থিত ছিলেন ওই বৈঠকে। সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, ওই বৈঠকে চিনের দাবি ছিল পূর্ব লাদাখে দুই দেশের ‘সীমানা’ পুনর্বিন্যাস করতে হবে। এই দাবি মানা হয়নি ভারতের পক্ষ থেকে। ভারতীয় সেনার মতে চিনের এই দাবি মেনে নেওয়ার মানে হল ভারতের একটা বড় অংশ চিনের দখলে চলে যাবে।

আরও পড়ুন: এবার করোনা আক্রান্ত হয়ে একদিনেই মৃতের সংখ্যার রেকর্ড ভারতে

এদিন বৈঠকে ভারতের পক্ষ থেকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়, চিনকে এপ্রিলের আগের স্থিরাবস্থা ফিরিয়ে দিতে হবে। এদিকে চিনের দাবি, তারা গালওয়ান থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে না। উল্টে সেনাকে নাকি প্যাংগং থেকে ২-৩ কিলোমিটার পিছিয়ে আসতে হবে। অর্থাৎ ফিঙ্গার ৪ থেকে ভারতীয় সেনাকে সরতে হবে। এর একটাই কারণ, সুপরিকল্পিতভাবে ওই অংশ চিন সেনা দখল করে নিতে পারবে। স্বাভাবিকভাবেই এই দাবি ভারতীয় সেনার পক্ষে মানা সম্ভব নয়। এভাবেই দীর্ঘক্ষণ আলোচার পরেও দু’পক্ষই অনড় থাকে নিজেদের সিদ্ধান্তে। তবে, সেনা সুত্রে জানা গেছে, এই পর্যায়ের আলোচনা আগামী দিনেও চলবে।

Facebook Twitter Print Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *