‘করোনিলের বিজ্ঞাপন করিনি, শুধু জানিয়েছিলাম’, চাপের মুখে জানালেন পতঞ্জলির সিইও

Mysepik Webdesk: কেন্দ্রীয় সরকারের কোনও অনুমতি ছাড়াই করোনার চিকিৎসা জন্য ব্যবহৃত ওষুধ ‘করোনিল’-এর প্রচার চালাচ্ছিলেন আয়ুর্বেদিক ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা পতঞ্জলির স্রষ্টা যোগগুরু রামদেব বাবা। হরিদ্বারে সংস্থার হেড কোয়াটারে রীতিমতো মঞ্চ বানিয়ে সেই ওষুধের প্রচার করছিল সংস্থা। অনুমতি ছাড়াই সংস্থার ওষুধের প্রচার নিয়ে রীতিমত বিতর্ক শুরু হয়েছে। শুধু তাই নয়, পতঞ্জলির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও ভাবছে উত্তরাখণ্ড সরকার। কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে আয়ুষ মন্ত্রকও। এবার জোড়া চাপে পড়ে সুর নরম করল পতঞ্জলি সংস্থা।

আরও পড়ুন: দক্ষিন কাশ্মীরে ফের নিকেশ ৩ জঙ্গি নিকেশ, জারি এনকাউন্টার

সংস্থার সিইও আচার্য বালকৃষ্ণর দাবি, ওষুধ বানানো, পরীক্ষা নিরীক্ষার সমস্ত নিয়ম কানুন মেনেই করোনিল বানানো হয়েছে। কিন্তু এই প্রসঙ্গে আয়ুষ মন্ত্রী শ্রীপদ নায়েক বলেছিলেন, পতঞ্জলির এভাবে বিজ্ঞাপন দেওয়া উচিত হয়নি। অন্যদিকে বালকৃষ্ণের যুক্তি, “আমরা তো বিজ্ঞাপন দিইনি, শুধু লোকজনদের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের কথা বলেছি।” প্রসঙ্গত, বাবা রামদেবের দাবি, করোনা চিকিৎসায় ১০০ শতাংশ কার্যকরী করোনিল। পতঞ্জলির দাবি, মাত্র সাত দিনেই মানুষ করোনার সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে যাবে।

Facebook Twitter Print Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *