দেশে করোনাক্রান্ত ৫ লাখের পথে! একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজারের কাছে

Coronavirus in India

Mysepik Webdesk: বুধবার অস্বাভাবিক ভাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ল দেশজুড়ে। গত ২৪ ঘন্টায় এক লাফে আক্রান্তের সংখ্যা ছড়াল ১৭ হাজারের কাছে। ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৪.৭ লাখ। একদিনে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ গিয়েছে আরও ৪১৮ জনের।

আরও পড়ুন: স্বস্তির খবর: রোজই রাজ্যে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের চেয়ে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা

এই প্রথম একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ হাজার ছাড়াল। বৃহস্পতিবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক প্রকাশিত মেডিক্যাল বুলেটিনে জানানো হয়েছে, একদিনে নতুন করে ১৬,৯২২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। ফলে এখন দেশে মোট আক্রান্ত ৪,৭৩,১০৫ জন। বর্তমানে চিকিত্‍‌সাধীন ১,৮৬,৫১৪ জন। মোট সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ২,৭১,৬৯৬ জন। গত ২৪ ঘন্টায় ৪১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৪,৮৯৪ জন।

আরও পড়ুন: লন্ডনে নতুন করোনা ভ্যাকসিনের মানবদেহে ট্রায়াল শুরু হল

এমন ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা উপর জোর দিচ্ছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। যাদের মধ্যে করোনার সামান্যতম উপসর্গ রয়েছে, তাঁরা যাতে সহজে পরীক্ষা করাতে পারেন, তা নিশ্চিত করতে সব রাজ্যের সরকারি হাসপাতালে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সংস্থা আইসিএমআর। র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের একটি সুবিধা হল, পরীক্ষার জন্য কোনও ল্যাবরেটরির প্রয়োজন নেই এবং ফলও জানা যায় দ্রুত। কিন্তু র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে কারও রিপোর্ট নেগেটিভ আসলে, সেই রিপোর্টের উপর পুরোপুরি নিশ্চিন্ত হওয়ার সুযোগ থাকে না।

তবে, মঙ্গলবার দেশজুড়ে দু’লক্ষেরও বেশি নমুনা পরীক্ষা করে নতুন নজির গড়েছে ভারত৷ আইসিএমআর প্রধান অধ্যাপক বলরাম ভার্গবের কথায়, ‘আমাদের লক্ষ্য, প্রতিটি জেলায় করোনা পরীক্ষার ল্যাব তৈরি করা৷ এখন দেশে ল্যাবরেটরির সংখ্যা এক হাজার৷ একটা ল্যাবরেটরি নিয়ে কাজ শুরু করে এতগুলি পরীক্ষাগার তৈরি করা নিঃসন্দেহে বড় সাফল্য৷ করোনা প্রতিরোধে টেস্টিং, ট্র্যাকিং ও ট্রিটমেন্ট-এর উপরই ভরসা রাখছি আমরা৷’

Facebook Twitter Print Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *