অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে স্নাতক হলেন মালালা ইউসুফজাই

Mysepik Webdesk: স্কুলে গিয়ে পড়াশোনা করতে চেয়েছিলেন তিনি, কিন্তু পাকিস্তানের তালিবানরা কখনোই চায়নি বাড়ির মেয়েরা স্কুলে গিয়ে পড়াশোনা করুক। তাই ১৩ বছরের কিশোরীকে ‘সবক’ শেখাতে তাঁর মাথা লক্ষ করে গুলি ছুড়েছিলেন তালিবানরা। কিন্তু মৃত্যুমুখে থেকে কোনোক্রমে ফিরে আসেন তিনি। সব প্রতিকূলতাকে ছাড়িয়ে অবশেষে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজনীতি, দর্শন এবং অর্থনীতি বিষয়ে স্নাতক হয়েছেন মালালা ইউসুফজাই। স্নাতক হওয়ার পর তিনি একটি ট্যুইট করে জানিয়েছেন একথা।

আরও পড়ুন: গত ২৪ ঘন্টায় বাংলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কমলো

২০১২ সালের ৯ অক্টোবর, পাকিস্তানের তালিবান জঙ্গিরা মাত্র ১৩ বছর বয়সে তাঁর মাথা লক্ষ করে গুলি করেছিল। তাঁর অপরাধ ছিল, তিনি পিঠে বইয়ের ব্যাগ নিয়ে স্কুলের দিকে যাচ্ছিলেন। কিন্তু, মেয়ে হয়ে পড়াশোনা করবে, রক্ষনশীল পরিবারের তা কোনও দিনই পছন্দ ছিল না। গুলি লেগেছিল তাঁর মাথায়। ওই বর্বরোচিত হামলার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছিল। একটানা ৮৯ দিন ধরে যমে-মানুষে টানাটানি চলেছিল তাঁর জীবন নিয়ে। চিকিত্‍‌‍সার জন্য পাকিস্তান থেকে তাঁকে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ব্রিটেনের হাসপাতালে। কিন্তু প্রতিকূলতাকে হারিয়ে জীবনযুদ্ধে তিনি জয়ী হয়েছেন। ব্রিটেন থেকেই শুরু হয় তাঁর লড়াই। আজ তিনি স্নাতক হওয়ার পর কেক কেটে সাফল্য উদযাপন করেছেন।

Facebook Twitter Print Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *