উপসর্গ নেই, তাই অনেকেই জানেন না করোনা আক্রান্ত হয়েও সুস্থ হয়ে উঠেছেন: আইসিএমআর

Mysepik Webdesk: সম্প্রতি সাধারণ মানুষের শরীরে করোনাভাইরাসের অ্যান্টিবডি (Antibody) তৈরি হয়েছে কিনা তা দেখার জন্য একটি সমীক্ষা করেছিল আইসিএমআর (ICMR)। সেরোলজিক্যাল টেস্টের (Serological Test) মাধ্যমে সমীক্ষা করে তারা একটি রিপোর্ট পেশ করেছে। সেই রিপোর্টে উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। অ্যান্টিবডি হল বিশেষ এক ধরনের প্রোটিন, যা শরীরে মধ্যে কোনও জীবাণু প্রবেশ করলে তার বিরুদ্ধে নিজে থেকেই লড়াই করে। আর এই অ্যান্টিবডির মধ্যে সব থেকে শক্তিশালী অ্যান্টিবডি হল ‘ইমিউনোগ্লোবিউলিন-জি’ (IGG) বা আই জি জি। সাধারণত রক্ত পরীক্ষা করে যদি আইজিজি পাওয়া যায়, তাহলে বোঝা যায়, সেই ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণের বাড়বাড়ন্ত, ফের লকডাউনে ফিরতে চলেছে কর্ণাটক!

কলকাতা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম,পূর্ব মেদিনীপুর, আলিপরদুয়ার, এই ছয় জেলার বাসিন্দাদের মধ্যে কিছুজনের রক্ত পরীক্ষা করেছিল আইসিএমআর। পাশাপাশি কলকাতায় ৩৯৬ জন এবং ওই জেলাগুলোয় মোট ৪০০ জন মানুষের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। সেই রক্ত পরীক্ষার রিপোর্টে দেখা গেছে কলকাতার ৩৯৬ জনের রক্তের নমুনার মধ্যে ৫৭ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। অর্থাৎ ওই রিপোর্টে বোঝা গেছে, কলকাতার ১৪.৩৯ শতাংশ ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন, আবার সেরেও উঠেছেন।

আরও পড়ুন: নিশানা চিনের যুদ্ধবিমান, লাদাখে বসছে শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র

অন্যদিকে আলিপুরদুয়ারে ৪ জনের রিপোর্ট পজিটিভ হয়েছে, পূর্ব মেদিনীপুরে ৩, বাঁকুড়াতে ১, ঝাড়গ্রামে ১, দক্ষিণ ২৪ পরগনাতে ১০ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। যাদের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে, তাদের শরীরে ইতিমধ্যেই অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ তারা কোনও না কোনও ভাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন, আবার সুস্থও হয়ে গেছেন।

Facebook Twitter Print Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *