জাতীয় ডাক্তার দিবস, ২০২০

D Day 001

মিতালী দেব (WBMC, Registration no. 48731)

সমগ্র পৃথিবী অতিমারির প্রকোপে জরাগ্রস্ত। এরই মধ্যে প্রতি বছরের মতোই ১ জুলাই দিনটি আবার ফিরে এল। এটি হল জাতীয় ডাক্তার দিবস। অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর (২০২০)-এর ডাক্তার দিবসটি অন্য রকম। ডাক্তারবাবুরা বিগত চার মাস ধরে প্রতিনিয়ত করোনা ভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করে চলেছেন। সৈনিক তো যুদ্ধক্ষেত্র ত্যাগ করতে পারেন না… কখনোই পারেন না… কোনও অবস্থাতেই পারেন না। হয়তো ডাক্তারকে বেশ কয়েক ঘণ্টা না খেয়েই ডিউটি করে যেতে হয়, হয়তো নয়নের মণি সন্তানটিকে কয়েক মাস ধরে দেখতে পাননি, হয়তো দেখতে পেলেও বুকে জড়িয়ে ধরতে পারেননি, হয়তো প্রিয়জনের শেষ বিদায়ে যেতে পারেননি।

আরও পড়ুন: হুল দিবসকে স্মরণ করে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের তরফে দু’দিনের ওয়েবিনার আয়োজন

এভাবেই ভারতবর্ষের বহু ডাক্তার যুদ্ধ করে যাচ্ছেন। ডাক্তার যে ভগবানের দ্বিতীয় রূপ। তাই তিনি পারেন না মুমূর্ষু করোনা রোগীকে ফেলে একবারের জন্য নিজের কথা ভাবতে, নিজের স্বার্থের কথা ভাবতে। তাঁকেও প্রিয়জনের সংস্পর্শ এড়িয়ে দূরে দূরে থাকতে হয়। এ যেন কোনও এক অলিখিত শর্ত— মানতেই হবে। অনেক ডাক্তার করোনার সংস্পর্শে মৃত্যুবরণ করেছেন, তাও তাঁরা থেমে যাননি। করোনা রোগীর সংখ্যা দিন-দিন বেড়েই চলেছে। সেই রোগীর সংখ্যার সঙ্গে তাল মিলিয়ে নতুন ডাক্তারের জন্ম হয় না। বরং বহু ডাক্তার তাঁর অমূল্য জীবনটি দান করেছেন ভাইরাসের সংস্পর্শে এসে।

আরও পড়ুন: বছর পঁয়তাল্লিশ পরে, চুনীবাবুর তীর্থপতির ট্রফি-ঘরে…

বলা বাহুল্য, ভারত সরকার ১৯৯১ সালের পয়লা জুলাই দিনটিকে “জাতীয় ডাক্তার দিবস” হিসাবে ঘোষণা করে। এই দিনটি বিখ্যাত ও চিরনমস্য ডাক্তার এবং পশ্চিমবঙ্গের সম্মানীয় মুখ্যমন্ত্রী শ্রী বিধান চন্দ্র রায় মহাশয়ের জন্মতিথি। ১৯৬১ সালের ৪ ফেব্রুয়ারিতে বঙ্গসন্তান বিধান চন্দ্র রায় মহাশয়কে ‘ভারত রত্ন’ উপাধিতে ভূষিত করা হয়েছিল।

দিনটির তাৎপর্য

আজকের এই দিনটি ভারতীয় ডাক্তাররা এই অতিমারির দিনগুলিতে যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন, তার প্রশংসা ও স্বীকৃতি হিসাবে পালন করা হচ্ছে ও জনগণকে সচেতন করে তোলা হচ্ছে। আজ সারা ভারতবর্ষে বিভিন্ন রকম Free treatment camps, Consultation এবং Free screening camp করা হচ্ছে। যার মাধ্যমে দরিদ্র মানুষ ও প্রবীণ নাগরিকদের মধ্যে স্বাস্থ্য পরিষেবা বিনামূল্যে দেবার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ডাক্তার সমুদয়ের মহৎ প্রচেষ্টাকে সম্মান দেবার জন্য মানুষ এগিয়ে এসেছে। ডাক্তারদের উদ্দেশ্যে সম্মানজ্ঞাপন স্বরূপ পশ্চিমবঙ্গের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী দিনটিতে ছুটি ঘোষণা করেছেন। যদিও ডাক্তার সমুদয়ের কখনোই ছুটি হয় না। তাঁরা অহর্নিশি কোনও না কোনওভাবে চিকিৎসাকার্যে লিপ্ত থাকেন।

সবশেষে একজন ডাক্তার হিসাবে সাধারণ মানুষের কাছে একটি বক্তব্য রাখব, তা হল— ডাক্তাররা ভগবান নন, তাঁরা কোনও জাদুকরও নন, তাঁরা কোনও অলৌকিক শক্তির অধিকারীও নন। কোনও ডাক্তার যেন নিগৃহীত না হন। ডাক্তার শুধুমাত্র প্রাণকে বাঁচাতে চেষ্টা করেন।

Facebook Twitter Print Whatsapp

One comment

  • SUBRATA KUMAR DAS

    To Dear Doctor Mitali Saha Deb –
    We feel indebted to Doctors Community till our life time even after death.
    Services can not be purchased, love is above Profession.
    Such a good writeup will arouse consciousness amongst all.Thanks a lot.
    Best regards.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *