শ্রীনগর থেকে দমদম হয়ে মেদিনীপুরে ফিরল শহীদ শ্যামল কুমার দে-র কফিনবন্দি দেহ

Mysepik Webdesk: শ্রীনগর থেকে দমদম বিমানবন্দরে শহীদ শ্যামল কুমার দে-র দেহ ফিরতেই সেখান থেকে প্রায় ১৪০ কিলোমিটার রাস্তা পেরিয়ে মেদিনীপুরের সবং-এ পৌঁছল শ্যামল কুমার দে-র দেহ। কলকাতার সিআরপিএফ-এর ১৬৭ নম্বর ব্যাটেলিয়নের জওয়ানরা শ্যামলের দেহ ফিরিয়ে আনল মেদিনীপুরের বাড়িতে। আজ রবিবার জোয়ানের শেষকৃত্যের কাজ। গোটা ঘটনাটির দায়িত্ব সামলেছেন মেদিনীপুর রেঞ্জের ডিআইজি অপারেশন পঙ্কজ কুমার।

আরও পড়ুন: প্রবল বর্ষায় ফুঁসছে নদী, বাংলাদেশে জলবন্দি হাজার হাজার মানুষ

নিয়ম অনুযায়ী কাশ্মীরের হাসপাতালে জোয়ানের ময়নাতদন্তের কাজ শেষ হওয়ার পরেই তাঁর দেহ আনা হয় শ্রীনগরের হুমহামায় সিআরপিএফ-এর হেড কোয়ার্টারে। সেখানেই শহীদ জওয়ানের গলায় মাল্যদান করার পর কফিনবন্দি দেহ নিয়ে আসা হয় শ্রীনগর বিমানবন্দরে। সেখান থেকে একটি বিমানে দিল্লি আর তারপর দিল্লি থেকে অন্য একটি বিমানে কলকাতা বিমানবন্দরে পৌঁছে দেওয়া হয় জওয়ানের দেহ। শনিবার রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ দেহ এসে পৌঁছায় কলকাতা বিমানবন্দরে। বিমানবন্দর থেকে জওয়ানের দেহ নিয়ে আসা হয় কলকাতার হেড কোয়ার্টারে। সেখানে জওয়ানকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়ে দেহ নিয়ে রওনা হয় মেদিনীপুরের দিকে।

আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর ভাতার ঘোষণাতেও কাটল না জট, ভাড়া বাড়ানোর দাবিতেই অনড় বাস মালিকেরা

প্রবল বৃষ্টির মধ্যে রাত ১টা নাগাদ দেহ পৌঁছে যায় মেদিনীপুরে সবং-এর বাড়িতে। সকাল ৭টায় সিংপুর গ্রামে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে শহীদকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য দেড় ঘন্টা দেহ রাখা হয়। সকাল সাড়ে আটটার সময় দেহ পৌঁছে দেওয়া হয় তাঁর বাড়িতে। বাড়ির সীমানার মধ্যেই পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গান স্যালুটের মাধ্যমে আজ শহীদের শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

Facebook Twitter Print Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *