লকডাউনে আয় কমেছে, বিপুল ছাঁটাইয়ের পথে টাটা গোষ্ঠী

Mysepik Webdesk: করোনা সংকটের ফলে প্রায় তিনমাস ধরে চলতে থাকা লকডাউনের ফলে ছোট বড় বহু সংস্থার আয়ের অঙ্ক কমেছে। টাটা গোষ্ঠীও তার ব্যতিক্রম নয়। এই পরিস্থিতিতে খুব শীঘ্রই টাটা গোষ্ঠী কর্মী ছাঁটাই করতে পারে বলে জানা গেছে। ইতিমধ্যেই ভারতের এই বহুজাতিক সংস্থাটি তাদের ১০০০ কর্মীকে ছাঁটাই করেছে। লকডাউনের ফলে টাটা গোষ্ঠীর আয়ের পরিমান অপ্রত্যাশিতভাবে কমে গেছে, টাইমস নিউজ নেটওয়ার্ক-এর একটি প্রতিবেদনে জানা গেছে এই তথ্য।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের ভিসা সমেত জম্মু-কাশ্মীর থেকে রাতারাতি ‘হাওয়া’ ২০০ যুবক, হাই এলার্ট জারি

সূত্রের খবর, কর্মী ছাঁটাইয়ের এই বিষয়টি শীর্ষ স্থানীয় কর্মীরা ইতিমধ্যেই স্থির করে ফেলেছে। যে কোনোও দিন সংস্থার তরফ থেকে এরকমই একটি ঘোষণা করা হতে পারে। করোনা সংকটের কারণে চলতি বছরে টাটা গোষ্ঠী এরোস্পেস, গাড়ি এবং অসামরিক বিমান পরিবহন শিল্পের ক্ষেত্রে অভাবনীয় ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে, তাই কর্মী ছাঁটাই ছাড়া সংস্থার ঘুরে দাঁড়ানোর আর কোনও রাস্তা নেই বলেই মনে করছে সংস্থা।

আরও পড়ুন: আর মুখের কথায় নয়, সীমান্তে শান্তি ফেরাতে বন্ধ করতে হবে নির্মাণকাজ, শর্ত দিলেন ভারতীয় রাষ্ট্রদূত

জানা গেছে, প্রথম পর্যায়ে উৎপাদন কেন্দ্রেগুলিতে যে কর্মীরা চুক্তিভিত্তিক নিযুক্ত রয়েছেন, তাদেরকেই প্রথম ছাঁটাইয়ের রাস্তায় হাটতে পারে সংস্থা। তাই ভারতের পাশাপাশি নেদারল্যান্ডে টাটা গোষ্ঠীর ইস্পাত কারখানার প্রায় ১ হাজার থেকে ৯ হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করতে পারে। উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই সংস্থা তাদের কিছু কর্মীদের ২০ শতাংশ বেতন কমিয়েছে। এর আগে সংস্থা তাদের কর্মীদের লোকসান হলেও ছাঁটাই করা হবে না বলে জানিয়েছিল, কিন্তু সাম্প্রতিকতম এই প্রতিবেদন আবার অন্য ইঙ্গিত দিচ্ছে। তবে কবে থেকে ভারতে টাটা গোষ্ঠী তাদের কর্মী ছাঁটাই শুরু করবে সেই বিষয়ে সংস্থার তরফ থেকে কিছু জানা যায়নি।

Facebook Twitter Print Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *