রোগ হলে ওষুধ খাওয়ার চেয়ে যে ওষুধে রোগ হবেই না তা হল যোগ

international yoga day

শম্ভু চক্রবর্তী (যোগানুরাগী)

২১ জুন, আন্তর্জাতিক যোগ দিবস। গত ৫ বছর ধরে সারাবিশ্বের সঙ্গে আমাদের দেশের জনগণ আয়ূষ মন্ত্রকের নির্দিষ্ট প্রোটোকল মেনে দিনটি পালন করে আসছে। যেহেতু এই বছরের পরিস্থিতি অনেকটাই আলাদা, তাই পালনের ধরন অন‍্যরকম হবে এটাই স্বাভাবিক। তবে বিশ্বের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করলে দিনটি পালনের গুরুত্ব অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক। কারণ, দেহের যে রোগ প্রতিরোধ শক্তি দিয়ে ক‍রোনার মতো মারণ ভাইরাসকে আমরা জব্দ করতে পারি, সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে যোগের বিকল্প আর কিছু হতেই পারে না।

আরও পড়ুন: বিশ্ব সংগীত দিবস: স্মরণে বড়ে গোলাম আলি

‘যোগ’ শব্দের উৎপত্তি সংস্কৃত ‘য়োক’ ধাতু থেকে, যার অর্থ যুক্ত করা বা যুক্ত হওয়া। আত্মার সঙ্গে পরমাত্মার যোগ। পতঞ্জলির ‘অষ্টাঙ্গ যোগ’-এ যোগ সাধনার যে ৮টি ধাপের (ইয়ম, নিয়ম, আসন, প্রাণায়ম, ধারণা, ধ্যান, প্রত্যাহার, সমাধি) উল্লেখ রয়েছে সেই ধাপগুলো বেয়ে আমরা পরমাত্মার (Ultimate Goal) সঙ্গে মিলিত হতে পারি।

আরও পড়ুন: কবিতার জন্য জীবন, জীবনের জন্য কবিতা

আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালনে আয়ূষ মন্ত্রক নির্দেশিত প্রটোকলে অষ্টাঙ্গ যোগের ৩টি অঙ্গ— আসন, প্রাণায়ম, ধ‍্যানের উল্লেখ রয়েছে।

আসনগুলোকে আবার নিম্ন লিখিতভাবে বিভক্ত করা যায়—

চিত হয়ে শুয়ে = উত্থান পদাসন, সর্বাঙ্গাসন, হলাসন ইত্যাদি।

উপুর হয়ে শুয়ে = মকরাসন, ভূজঙ্গাসন, শলভাসন, ধনুরাসন ইত্যাদি।

সামনে ঝুঁকে = পশ্চিম উত্তনাসন, পদহস্তাসন, অর্ধকূর্মাসন ইত্যাদি।

পিছনে ঝুঁকে= মৎস‍্যাসন, উষ্ট্রাসন, অর্ধচন্দ্রাসন, চক্রাসন ইত্যাদি।

কোমরের উপরের অংশ মোচড় = বক্রাসন, অর্ধমৎস‍্যেন্দাসন ইত্যাদি

ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ = বৃক্ষাসন,  উৎকটাসন, উত্থান পদ্মাসন ইত্যাদি।

পার্শ্ব ঝোঁকা = ত্রিকোণাসন প্রতি আসনের পরে শবাসন।

ছোট বয়স থেকে নিয়মিত আসন অভ‍্যাস করলে দেহের অভ‍্যন্তরের অঙ্গ ও গ্রন্থিগুলির সক্রিয়তা বৃদ্ধি পায়। এর ফলে দেহের রোগ প্রতিরোধী ব‍্যবস্থা মজবুত হয়।

বিভিন্ন প্রাণায়ম অভ‍্যাসে দেহের কোষে কোষে প্রাণবায়ু অক্সিজেনের সঞ্চয় বেড়ে যায়, দূষিত বায়ু কার্বন ডাইঅক্সাইড দেহে জমতে পারে না। ফলে দেহ রোগমুক্ত থাকে।

নিয়মিত ধ‍্যান অভ‍্যাসে মন শান্ত হয় ও মনোসংযোগ করার শক্তি বৃদ্ধি  হয়।

আমার প্রায় তিরিশ বছরের যোগাসন চর্চার অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, যারা ছোট থেকে যোগচর্চা করছে তাদের সর্বদা প্রাণবন্ত দেখায়, কখনও তাদের হতাশাগ্রস্ত হতে দেখিনি, অবসাদ তাদের ধারেকাছে ঘেঁষতে ভয় পায়।

রোগ হলে ওষুধ খাওয়ার চেয়ে যে ওষুধে রোগ হবেই না, তা খাওয়া ভালো নয় কি? যোগ হল সেই ওষুধ, যা আমাদের দেহে মাল্টি ভ্যাকসিনের কাজ করে।

তাই আসুন, এই যোগ দিবসে সুস্থ রোগমুক্ত বিশ্ব গড়ে তুলতে নিয়মিত যোগাভ‍্যাসের জন্য সকলে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হই।

Facebook Twitter Print Whatsapp

One comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *