শাশুড়ি মরলে তবেই ফিরব, স্ত্রী কে ফেরাতে মাকে খুন ছেলের

murder

Mysepik Webdesk: অভিযোগ ছিল, শাশুড়ি মরলে তবেই স্ত্রী বাপের বাড়ি থেকে ফিরবে। তাই স্ত্রীকে বাপের বাড়ি থেকে ফেরাতে নিজের মাকেই খুন করে বসল উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা থানা এলাকার বাসিন্দা পেশায় শ্রমিক জয়গোপাল বিশ্বাস। প্রতিবেশীরা খবর দিলে পুলিশ এসে রক্তাক্ত মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়। গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্তকে।

আরও পড়ুন: ডাক্তারদের কেরামতিতে কাটা হাত জুড়েছে, বাড়ি ফিরতে ফুল ছড়িয়ে সম্বর্ধনা ইনস্পেক্টর হরজিত সিং কে

প্রতিবেশীরা জানিয়েছে, ১২ বছর আগে জয়গোপাল বিশ্বাসের বিয়ে হয়েছিল। তাদের একটি ছেলে ও মেয়ে রয়েছে। সম্প্রতি তাদের দুজনের মধ্যে প্রায়ই অশান্তি লেগে থাকত। সেই অশান্তি চরমে ওঠায় দুই সন্তানকে নিয়ে জয়গোপালের স্ত্রী কিছুদিন আগেই বাপেরবাড়ি চলে যায়। সেই থেকেই মানসিক সমস্যা দেখা দেয় জয়গোপালের। মাঝে মধ্যেই সে অস্বাভাবিক আচরণ করত। প্রায়ই স্ত্রীকে ফোন করে বাড়ি ফিরে আসার কথা বলতো। সেই নিয়ে তাদের দুজনের মধ্যে ফোনে কথা কাটাকাটি হতো। জয়গোপালের কথায় তাঁর স্ত্রীর নাকি দাবি ছিল শাশুড়ি যতদিন বেঁচে থাকবে ততদিন সে সংসার করবে না।

আরও পড়ুন: প্রকাশ্যে রাস্তায় পানের পিক ফেলার জের, জামা খুলিয়ে পরিষ্কার করানো হল যুবককে

সূত্রের খবর অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার ভোরবেলা প্রতিবেশীরা হটাৎ তাদের বাড়ি থেকে চিৎকারের আওয়াজ শুনতে পেয়ে ছুটে এসে দেখেন রক্তাক্ত অবস্থায় জয়গোপালের মা সুমিত্রাদেবী পড়ে আছেন। এরপর প্রতিবেশীরা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠায়। গ্রেফতার করা হয় জয়গোপালকে। পুলিশকে জয়গোপাল জানিয়েছে, বৌকে বাড়ি আনার জন্যই সে মাকে খুন করেছে। মাকে মেরে ফেললেই তার স্ত্রী তার সঙ্গে সংসার করবে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *