একই খাবারের অর্ডার নিয়ে দরজার সামনে হাজির ৪২ জন ডেলিভারি বয়!

food

Mysepik Webdesk: ঠাকুমার সঙ্গে বেশ মজায় দিনটি কাটাচ্ছিল সাত বছরের নাতনির। ঠাকুমা রান্নাবান্নার ঝামেলা না করে নাতনিকে অনলাইন খাবার অর্ডার করতে বলে। সেই মোট খাবার অর্ডার দেয় সে। কিন্তু ইন্টারনেটের সমস্যা তাকে বিপাকে ফেলল। এই ছোট খুদের কাণ্ডই এখন নেটদুনিয়ায় ভাইরাল।

আরও পড়ুন: এটিই বিশ্বের সবচেয়ে দামি ব্যাগ!

ঠাকুমার কথা মোট ওই খুদে একটি অনলাইন খাবার ডেলিভারি কোম্পানিতে দুই বাক্স ফ্রায়েড চিকেন ফিলে এবং ভাতের অর্ডার দিয়েছিল। কিন্তু সেই সময়েই ইন্টারনেটের গতি কিছুটা স্লো হয়ে যায়। ফলে খাবার আদৌ অর্ডার হয়েছে কি না, তা বুজতে পারছিলন না খুদেটি। কিছুক্ষণ পর দরজায় বেল বাজে। আর দরজা খুলতেই চক্ষু চড়কগাছ। কারণ শিশুটি দেখে তার বাড়ির সামনে একজন নয় দু’জন নয় ৪২ জন ডেলিভারি বয় একই খাবার নিয়ে উপস্থিত। ইন্টারনেটের গতি স্লো থেকে কারণ সে ধৈর্য না ধরে পরপর বিয়াল্লিশ বার খাবার অর্ডার দিয়ে ফেলেছিল তা প্রথমে বুঝতে পারেনি ওই বৃদ্ধার নাতনি। ডেলিভারি বয়রাই গোটা বিষয়টি বোঝায় তাকে। আর এমন ঘটনার ফলে শহরের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা বারাঙ্গায় মাবোলো দিনের ব্যস্ত সময়ে প্রায় থমকে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে ফিলিপাইনের সেবু শহরে।

আরও পড়ুন: ফুচকার টক জলে প্রস্রাব, ভিডিও ভাইরাল হতেই বেধড়ক মার ফুচকাওয়ালাকে

৪২ জন ডেলিভারি বয় হাজির একই খাবার নিয়ে ! কারণ জানলে চমকে উঠবেন | Aramva

এই ঘটনায় যেন মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে তার। একে তো প্রয়োজনের তুলনায় বাড়ির সামনে এসে পৌঁছেছে অতিরিক্ত খাবার। তার যেখানে বিল হওয়ার কথা ছিল ফিলিপাইনের মুদ্রায় মাত্র ১৮৯ পিএইচপি, সেখানে তা গিয়ে দাঁড়ায় ৭৯৪৫ পিএইতপিতে।

সেই সময় ওই শিশুরই এক প্রতিবেশী গোটা ঘটনাটি ফেসবুক লাইভ করছিলেন। সেখানে ঠাকুমার কথামতো অতিরিক্ত খাবার কেনার আরজি জানানো হয়। শেষ পর্যন্ত ওই শিশু এবং তার ঠাকুমাকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন প্রতিবেশীরা। তারাই অতিরিক্ত খাবারের প্যাকেটগুলি কিনে নেন। তাই অনলাইন খাবার অর্ডার দেওয়ার সময় সাবধান থাকুন!

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *