ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তে রাজ্যে ৪ সদস্যের কেন্দ্রীয় দল

Mysepik Webdesk: বিধানসভা ভোটের ফলাফলের পরেই রাজ্যের একাধিক জেলায় হিংসার ঘটনা ঘটছে। বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ দাবি করেছিলেন, ভোটের ফলাফল ঘোষণা হাওয়ার কয়েকদিনের মধ্যে ৬ জন বিজেপি কর্মী খুন হয়েছে। এবার রাজ্যে হিংসার ঘটনার বিষয়ে কড়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ইতিমধ্যেই অশান্তির বিষয়টি উল্লেখ করে বুধবার রাজ্য সরকারকে চিঠি দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তার পরেই বৃহস্পতিবার এই ঘটনার তদন্ত করতে চার জন সদস্যের একটি তদন্তকারী দলকে পশ্চিমবঙ্গে পাঠালো কেন্দ্রীয় সরকার।

আরও পড়ুন: রাজ্যে লোকাল ট্রেনের পাশাপাশি বাতিল বেশ কিছু এক্সপ্রেস ট্রেনও, জেনে নিন তালিকা

যদিও ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানের শেষে তিনি জানান, রাজ্যে যারা এই ধরণের হিংসা ছড়াচ্ছে, তারা যেন এই ধরণের ঘটনা থেকে বিরত থাকে, নইলে প্রশাসন কড়া ব্যবস্থা নেবে তাদের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে হিংসার ঘটনাকে সামনে রেখে মুখ্যমন্ত্রী বিজেপিকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করেছেন। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, বিজেপি নিজেদের পরাজয় মেনে নিতে পারছে না, তাই এই ধরণের হিংসাত্মক ঘটনা ঘটাচ্ছে। এটা বিজেপির রাজনৈতিক নাটক। আমাদের কর্মীদের হত্যা করা হয়েছে, বিজেপির নয়।”

আরও পড়ুন: এবার বিরোধী দলনেতার মুখ হতে পারেন শুভেন্দু

এই প্রসঙ্গে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা বলেছেন, “স্বাধীন ভারতে কখনও এই ধরণের ঘটনা এর আগে কেউ দেখেনি। বিধানসভা নির্বাচনের পর পশ্চিমবঙ্গের মানুষ যে ঘটনার সাক্ষী হল, তাতে আমরা হতবাক। এমন উদ্বেগজনক পরিবেশের ঘটনা দেশভাগের সময় শোনা গিয়েছিল।” তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে সরাসরি নিশানা করে বলেন, “মমতা নির্বাচন জেতার পর যেভাবে সাধারণ মানুষের ওপর সন্ত্রাস চালাচ্ছে তাতে বোঝা যাচ্ছে তাঁর গণতন্ত্রের উপর কতটা ভরসা আছে। নিরীহ লোকেদের উপর অত্যাচার চালানো হচ্ছে। গণতান্ত্রিক উপায়ে বিজেপি এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাবে। অন্যায়ের বিরুদ্ধে বিজেপি শেষ পর্যন্ত লড়াই করবে।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *