ধর্ষকদের হুমকির জেরে কুয়োতে ঝাঁপ দিয়ে পাকিস্তানের হিন্দু কিশোরীর আত্মহত্যা

Death

Mysepik Webdesk: সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচারের ঘটনা পাকিস্তানে নতুন কিছু নয়। একাধিকবার সংবাদমাধ্যমে উঠে এসেছে এই ধরণের সংখ্যালঘু নির্যাতনের খবর। এবার ধর্ষকদের হুমকির জেরে পাকিস্তানে ১৭ বছরের এক কিশোরী কুয়োতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করল। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের থারপারকার জেলার দালানজোটার গ্রামে।

আরও পড়ুন: করোনা ভ্যাকসিন বানানোর জন্য বলি হতে চলেছে পাঁচ লক্ষ হাঙ্গর

গতবছর জুলাই মাসের মাঝামাঝি নাগাদ ওই কিশোরীকে অপহরণ করে একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে ধর্ষণ করে তিন ব্যক্তি। মেয়েটির অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ওই তিনজনকে গ্রেফতার করলেও প্রভাব খাটিয়ে তদন্তকারী পুলিশের সাহায্যে ছাড়া পেয়ে যায় তারা। স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনায় আতঙ্কগ্রস্থ ছিল মেয়েটি ও তার পরিবারের সদস্যরা। ইদানিং কিছুদিন ধরেই অভিযুক্তরা মেয়েটি ও তাঁর পরিবারকে চাপ দিচ্ছিল ধর্ষণের মামলাটি তুলে নেওয়ার জন্য। পাশাপাশি মেয়েটির ওপর অত্যাচারের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দেওয়ারও হুমকি দিচ্ছিল তারা।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া, দ্রুত আরোগ্য কামনা প্রধানমন্ত্রী মোদির

এদিকে প্রবল মানসিক চাপ সহ্য করতে না পেরে ওই কিশোরী চরম সিদ্ধান্ত নেয়। গ্রামের মধ্যেই একটি গভীর কুয়োতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করতে যায়। সেখানে স্থানীয় কয়েকজন ঘটনাটি দেখতে পেয়ে মেয়েটিকে কুয়ো থেকে উদ্ধার করে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। যদিও পরে ধর্ষণের ঘটনায় যুক্ত থাকা এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *