নির্ধারিত সময়ের আগেই ইডির দপ্তরে পৌঁছালেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

Mysepik Webdesk: সোমবার সকাল ১১টা নাগাদ তাঁকে নয়াদিল্লির ইডির দপ্তরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেই নির্ধারিত সময়ের আগেই তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্ত ইডির জামনগর শাখা অফিসে পেছনের গেট দিয়ে প্রবেশ করলেন। প্রসঙ্গত, কয়লাকাণ্ডে অভিষেক ও তাঁর স্ত্রী রুজিরাকে দিল্লি তলব করেছিল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। কিন্তু করোনা আবহে দুই সন্তানকে নিয়ে দিল্লি যাওয়া সম্ভব নয় বলে ই-মেলের মাধ্যমে জানিয়েছিলেন অভিষেকপত্নী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও ইডির মুখোমুখি হতে রবিবার বিকেলেই দিল্লি উড়ে যান অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: করোনার বিরুদ্ধে লড়তে কোভ্যাকসিন কতটা কার্যকরী, জানাল আইসিএমআর

এদিন ইডির দপ্তরে প্রবেশ করার আগে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, “ইডি তাঁদের কাজ করছেন। আমি তাঁদের তদন্তে সহযোগিতা করতে এখানে এসেছি। ওঁরা আমাকে ডেকেছেন, দেশের একজন নাগরিক হিসেবে আমি আমার কাজ করে যাব।” দিল্লির বিমান ধরার আগে রবিবার বিকেলেও কলকাতা বিমানবন্দরে দাঁড়িয়ে তিনি সাংবাদিকদের সামনে ইডির উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, “ক্ষমতা থাকলে ১০ পয়সা লেনদেনের প্রমাণ করে দেখান। আমার বিরুদ্ধে যদি কোন কেন্দ্রীয় সংস্থা প্রমাণ দিতে পারে, তাহলে আমার বিরুদ্ধে ইডি সিবিআই লাগানো দরকার নেই। আমার পিছনে ইডি সিবিআই লাগাতে হবে না। ফাঁসির মঞ্চ বানিয়ে আমাকে বলুন, আমি আনন্দে মৃত্যুবরণ করতে রাজি আছি কিন্তু আমার এই কথা থেকে আমি পিছোব না।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *