সাংবাদিক বৈঠক করলেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী, কী জানালেন তিনি?

Mysepik Webdesk: মুর্শিদাবাদ জেলা কংগ্রেস কার্যালয়ে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা লোকসভার পরিষদীয় বিরোধী দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠক করলেন। এদিনের বৈঠক থেকে তিনি শাসক দলের তীব্র নিন্দা করে জানান, সামশেরগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী জৈদুল রহমানকে শাসক দলের নেতৃত্ব বিভিন্ন ভাবে চাপ সৃষ্টি করছে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা না করবার জন্য। পাশাপাশি, একাধিক ইস্যু নিয়ে রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র নিন্দা করেন লোকসভার পরিষদীয় বিরোধী দলনেতা রঞ্জন চৌধুরী।

আরও পড়ুন: সঞ্জীবনী পরিবারের উদ্যোগে মুর্শিদাবাদে রক্তদান শিবির

প্রসঙ্গত, গত শনিবারই আসানসোলের সংসদ বাবুল সুপ্রিয় তৃনমূলে যোগদান করেছেন। সেই প্রসঙ্গে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী জানিয়েছিলেন, আগে স্পিকারের কাছে পদত্যাগ পত্র দেওয়া তারপর অন্য দলে যোগদান করা উচিত ছিল। সেক্ষেত্রে যে দল তাঁকে যোগদান করাচ্ছে তাদেরও একই নিয়ম মানা উচিত বলে তিনি মনে করেন। অধীর চৌধুরীর মতে, বাবুল সুপ্রিয় তাঁর মন্ত্রিত্ব পদ হারিয়েছে এবং সেই কারণেই হয়তো তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছে।

আরও পড়ুন: প্রেমিকের সঙ্গে মিলে স্বামীকে খুন, ফের মনুয়াকাণ্ডের ছায়া হাওড়ায়

অধীর চৌধুরী জানিয়েছিলেন, “আমাদের ক্লাবের পক্ষ থেকেও গায়ক বাবুল সুপ্রিয়কে অনেক অনুষ্ঠানে আনা হয়েছিল। বাবা রামদেবের হাত ধরে তিনি বিজেপিতে যোগদান করেন এবং পরে মন্ত্রিত্ব পান। এখন তিনি হয়তো এটা বলবেন যে বাংলায় মমতা ব্যানার্জীর উন্নয়ন দেখে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছে। আমরা বলব আসুন কংগ্রেসে যোগদান করুন। হয়ত কংগ্রেসের কোন সিট না থাকতে পারে কিন্তু কংগ্রেসের দলে যোগদান করলে অন্তত কারও গোলামী করতে হবে না। যত বিজেপি ভেঙে যাচ্ছে, ততই তৃণমূল কংগ্রেস শক্তিশালী হয়ে যাচ্ছে। তবে বাংলায় বিজেপির কোনও অস্তিত্বই নেই এটা আবার প্রমাণিত হল।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *