লিম্পিয়াধুরা, কালাপানি ও লিপুলেখের পর এবার নৈনিতাল ও দেরাদুনকেও নিজেদের বলে দাবি নেপালের

Nepal vs India

Mysepik Webdsk: গত জুন মাসে ভারতীয় ভূখণ্ড লিম্পিয়াধুরা, কালাপানি ও লিপুলেখকে নিজেদের এলাকা বলে দাবি করেছিল নেপাল। শুধু তাই নয়, নেপালের জাতীয় সভাতেও পাশ হয়ে গিয়েছিল নতুন মানচিত্র বিল। ওই তিনটি এলাকাকে নিজেদের মানচিত্রে দেখিয়ে সেই মানচিত্র প্রকাশ করেছিল নেপাল। এবার উত্তরাখণ্ডের নৈনিতাল ও দেরাদুনকেও নিজেদের ভূখণ্ড বলে দাবি করে বসলো তারা।

আরও পড়ুন: একসঙ্গে চার চারটি করোনার টিকা বাজারে আনতে চলেছে চিন

সূত্রের খবর, নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি, ইউনিফায়েড নেপাল ন্যাশনাল ফ্রন্টের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে সম্প্রতি গ্রেটার নেপাল প্রচার শুরু করেছে। সেই প্রচারের অঙ্গ হিসেবে ১৮১৬ সালের সুগৌলি চুক্তির আগে তৈরি হওয়া নেপালের মানচিত্রকে প্রকাশ্যে আনা হয়েছে। ওই মানচিত্রে নেপাল ভারতের রাজ্য উত্তরাখণ্ড, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, বিহার এমনকি সিকিমের একাধিক এলাকাকেও নিজেদের বলে দাবি করছে নেপাল। শুধু তাই নয়, ফেসবুক, ট্যুইটার ও ইউটিউব চ্যানেলে লাগাতার বক্তব্য রাখার পাশাপাশি নেপালের নবীন প্রজন্মকেও ভারতের বিরুদ্ধে যাওয়ার জন্য উসকানি দেওয়া হচ্ছে। দলে টানা হয়েছে পাকিস্তানের নবীন প্রজন্মের একাংশকেও।

আরও পড়ুন: জাপানের প্রধানমন্ত্রী হলেন ‘কৃষকের ছেলে’ ইয়োশিহিদে সুগাই

যদিও পর্যবেক্ষকমহলের দাবি, ভারতের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে কাঠমান্ডুর সাম্প্রতিক এই সক্রিয়তার নেপথ্যে আসলে রয়েছে চিন। সামনে না এসে পেছন থেকে তারাই আসল কলকাঠি নাড়ছে। কারণ, নেপালে কমিউনিস্ট পার্টি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই গোপনে চিন ও নেপালের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা বেড়েছে। আর এর ফলেই ভারত বিরোধী মনোভাব গড়ে উঠছে নেপালের মধ্যে।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *