Latest News

Popular Posts

ফের উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে স্থগিতাদেশ, কী হবে চাকরিপ্রার্থীদের ভবিষ্যৎ?

ফের উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে স্থগিতাদেশ, কী হবে চাকরিপ্রার্থীদের ভবিষ্যৎ?

Mysepik Webdesk: অবশেষে আশঙ্কাই সত্যি হল। ফের উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে স্থগিতাদেশ জারি করল কলকাতা হাইকোর্ট। এর ফলে কার্যত অনিশ্চিত হয়ে গেল চাকরিপ্রার্থীদের ভবিষ্যৎ। মঙ্গলবার প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের ওয়েবসাইটে ইন্টারভিউয়ের তালিকা প্রকাশ করা হয়। তারপরেই অভিযোগ ওঠে, ন্যূনতম কত নম্বর পেলে ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য ডাকা হবে, তা উল্লেখ করা নেই। অভিযোগকারীদের দাবি, নিয়োগের ক্ষেত্রে বেনিয়ম হচ্ছে। অনেক পরীক্ষার্থীই বেশি নম্বর পেয়েও ইন্টারভিউতে ডাক পাননি। ফলে, স্থগিত রাখা হোক শিক্ষক নিয়োগ।

আরও পড়ুন: কীভাবে পাওয়া যাবে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের সুবিধা? জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

পরীক্ষার্থীদের দাবি মেনে এদিন কার্যত উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে স্থগিতাদেশ জারি করল আদালত। এদিন এই নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ২ জুলাই হবে বলে জানানো হয়েছে। এর ফলে রাজ্যে মোট ১৪৩৩৯ পদে শিক্ষক নিয়োগের জন্য যে ইন্টারভিউ হওয়ার কথা ছিল, তা স্থগিত হয়ে গেল।

আরও পড়ুন: স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের ঘোষণা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

প্রসঙ্গত, রাজ্যে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে বেনিয়ম হচ্ছে, দাবি জানিয়ে হাইকোর্টের যারা দ্বারস্থ হয়েছিলেন পূর্ব বর্ধমানের পরীক্ষার্থী অভিজিৎ ঘোষ, মহঃ সারিকুল ইসলাম, বিশ্বজিৎ গড়াই। তাঁদের দাবি, নিয়ম অনুযায়ী ইন্টারভিউ তালিকায় থাকতে হবে টেট পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর, অ্যাকাডেমিক স্কোর সহ ও অন্যান্য মার্কস। এক্ষেত্রে এই বিষয়গুলির কোনও উল্লেখ নেই তালিকায়। তাছাড়া বিশ্বজিৎ গড়াইয়ের আইনজীবী সুদীপ্ত দাশগুপ্ত জানান, তাদের হাতে প্রায় ১২ জন পরীক্ষার্থীর ভুলের তথ্য আছে, আদালতে সেগুলিও পেশ করা হয়। আদালত সমস্ত বিষয়গুলি পর্যবেক্ষণ করে স্থগিতাদেশের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *