আইবা যুব পুরুষ ও মহিলা ওয়ার্ল্ড বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে শীর্ষ স্থান অর্জন আলফিয়া পাঠানের

Mysepik Webdesk: বৃহস্পতিবার পোল্যান্ডের কিয়েলেস আইবা যুব পুরুষ ও মহিলা ওয়ার্ল্ড বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে ভারতের মহিলা বক্সিংয়ের আলফিয়া পাঠান (৮১ কেজি) শীর্ষ স্থান অর্জন করেছেন। ফাইনালে জিতেছেন তিনি। বৃহস্পতিবার স্বর্ণপদক অর্জন করেছেন এই মহিলা বক্সার। আলফিয়া পাঠান (৮১ কেজি) ফাইনালে মোলডোভার ডারিয়া কোজোরভকে একতরফাভাবে পরাজিত করে স্বর্ণপদক জেতেন। টুর্নামেন্টে এটি ভারতের টানা সপ্তম স্বর্ণপদক। মহিলাদের বিভাগে সাতটি স্বর্ণপদক জিতেছে ভারত। যুব বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে এটি ভারতের সেরা এবং ঐতিহাসিক পারফরম্যান্স। ভারত এর আগে গুয়াহাটিতে ২০১৭ যুব বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে পাঁচটি স্বর্ণপদক জিতেছিল।

আরও পড়ুন: বক্সার সিমরনজিৎ কৌরের করোনা, স্থগিত করা হল মহিলাদের জাতীয় শিবির

গীতিকা এবং নাওরেম চানু

টুর্নামেন্টের নবম দিনে এটি টানা সপ্তম স্বর্ণপদক। পাঠানের আগে সানামাচা চানু, অরুন্ধতী চৌধুরি (৬৯ কেজি), ভিঙ্কা (৬০ কেজি), এশিয়ার যুব চ্যাম্পিয়ন ববিরোজিসানা চানু (৫১ কেজি), পুনম (৫৭ কেজি) এবং গীতিকা (৪৮ কেজি) স্বর্ণপদক জিতেছিলেন। চানু ফাইনালে রাশিয়ার ভ্যালরিয়া লিংকোভাকে ৪-০ ব্যবধানে হারিয়ে স্বর্ণপদক জিতেছিলেন।

আরও পড়ুন: কলকাতায় চিকিৎসা করাতে আসা বাংলাদেশি ফুটবলারের দায়িত্ব নিয়ে মন জিতে নিলেন সবুজ মেরুন ব্রিগেডের প্রীতম কোটাল

পুনম। ছবি সৌজন্য: বিএফআই

অন্যদিকে, গীতিকা একতরফাভাবে পোল্যান্ডের নাটালিয়া ডোমিনিকাকে ৫-০ ব্যবধানে হারিয়েছেন। একইসঙ্গে, পুনম ফাইনালে স্টেলেনী গ্রোসিকে ৫-০ ব্যবধানে পরাজিত করেছিলেন এবং পাঁচ বিচারক সর্বসম্মতিক্রমে ভিঙ্কাকে ঝুলদেজ শ্যামাটোভার বিপক্ষে বিজয়ী ঘোষণা করেছিলেন। ফাইনালে ফাইনালে পোল্যান্ডের বার্বারা মার্সিনকোভস্কাকে ৫-০ ব্যবধানে হারিয়েছেন অরুন্ধতী।

আরও পড়ুন: করোনা আশঙ্কার ছায়া এবার বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালকে কেন্দ্র করে

২০ সদস্যের এই ভারতীয় দল তাঁদের অভূতপূর্ব পারফরম্যান্সে ১১টি পদক জিতে ইতিহাস তৈরি করেছে। ভারতের আগের সেরা পারফরম্যান্স ছিল ১০টি পদক জয়, যা তারা ২০১৮ সালে হাঙ্গেরিতে বিশ্ব যুব চ্যাম্পিয়নশিপে জিতেছিল। এর আগে পুরুষদের বিভাগে বিশ্বামিত্র চংশোম (৪৯ কেজি), অঙ্কিত নারওয়াল (৬৪ কেজি) এবং বিশাল গুপ্ত (৯৯ কেজি) সেমিফাইনালে দেশের হয়ে তিনটি ব্রোঞ্জ পদক জেতেন। দশ দিনের এই চ্যাম্পিয়নশিপে ৫২টি দেশের ৪১৪ জন বক্সার অংশগ্রহণ করেছিলেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *