সবকটি মৃত্যুদণ্ডের ওপর স্থগিতাদেশ আমেরিকায়

Mysepik Webdesk: যতই জঘন্যতম, নৃশংস অপরাধের আসামি হোক না কেন, স্থগিতাদেশ দেওয়া হল প্রত্যেকটি মৃত্যুদণ্ডের ওপর। বৃহস্পতিবার এই স্থগিতাদেশ জারি করেছেন মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড। তিনি একটি নির্দেশিকার মাধ্যমে এই নির্দেশ জারি করেছেন। তিনি একটি বিবৃতিতে জানান, “আমেরিকার বিচার বিভাগকে এই মর্মে নিশ্চিত করতে হবে যে আমেরিকায় যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগীয় পরিকাঠামো প্রত্যেক অপরাধীকে সংবিধানের দেওয়া মার্কিন আইনের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি তাদের বিচারের বিষয়টি স্বচ্ছ ও মানবিক ভাবে করা হচ্ছে। যতদিন না পর্যন্ত এই বিষয়টি নিশ্চিত করা হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে কোনও মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে না”

আরও পড়ুন: অবশেষে কোভিশিল্ড গ্রহীতাকে অনুমোদন দিল ইউরোপের ৮টি দেশ

যেকোনও ধরণের ধরণের অপরাধের জন্য চরমতম সাজা মৃত্যুদণ্ড হতে পারে না। এই বিষয়টি নিয়ে বার বার প্রশ্ন উঠেছে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে। এবার দেশটির নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আমলে এই বিষয়টি নিয়ে নতুন করে চিন্তাভাবনা শুরু করা হচ্ছে। আমেরিকার বিচার বিভাগীয় দপ্তরও এই মৃত্যুদণ্ড নিয়ে কার্যত গভীর পর্যালোচনা করেছে। ফলে, আগামী দিনে আমেরিকায় কোনও আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হবে, সেই বিষয়ে আর কোনও নিশ্চয়তা থাকছে না। প্রসঙ্গত, গত বছরের মাঝামাঝি থেকে চলতি বছরের শুরু পর্যন্ত আমেরিকায় ট্রাম্প সরকারের বিদায়ের আগে ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে, যা উনবিংশ শতাব্দীর সময় থেকে এ পর্যন্ত কোনও মার্কিন প্রেসিডেন্টের আমলে এত অল্প সময়ে এতজনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়নি।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশেও এবার মেট্রোরেল, আগামী বছর থেকেই শুরু পরিষেবা

তবে ক্ষমতায় আসার আগে জো বাইডেন দাবি করেছিলেন, তিনি ক্ষমতায় এলে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুদণ্ডে রদে আইন আনার ব্যবস্থা করবেন। এবার সেই রাস্তায় তিনি হাটতে চলেছেন বলেই মনে করা হচ্ছে। এদিকে ‘ফেডেলার ক্যাপিটাল হাবিস প্রোজেক্ট’-এর প্রধান রুথ ফ্রিডম্যান সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, “এটাই হল সঠিক দিকে সরকারের প্রথম পদক্ষেপ। কিন্তু এটা যথেষ্ট নয়। বিচার বিভাগের সমর্থন নিয়ে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সমস্ত মৃত্যুদণ্ড রদ করে দেওয়া উচিত।” প্রসঙ্গত এই মুহূর্তে আমেরিকায় মোট ৪৬ জন বন্দির মৃত্যুদণ্ডের আদেশ স্থগিত রয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন ২০ জন শ্বেতাঙ্গ, ১৮ জন কৃষ্ণাঙ্গ, সাতজন লাতিন আমেরিকান ও একজন এশিয়ান।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *