‘শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস’ নাম না ফিরলেও রবি ঠাকুরের ছবি ফেরাল রেল কর্তপক্ষ

Mysepik Webdesk: লকডাউনের পর থেকে শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস চলছে হাওড়া-বোলপুর স্পেশাল নামে। সেই ট্রেনের নাম বদলে করা হয়েছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (আরএসএস)-এর অগ্রদূত এবং ভারতীয় জনসংঘ, ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নেতা দীনদয়াল উপাধ্যায়ের নামে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিধন্য এই ট্রেনের নাম আচমকাই বদলে যাওয়াতে পূর্ব রেলের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছে বাঙালি। কেবল তা-ই নয়, ট্রেনের বাতানুকূল কামরা থেকে রবীন্দ্রনাথের আঁকা ছবির প্রতিলিপি এবং শান্তিনিকেতন আশ্রমের ছবি মুছে ফেলা হয়েছে। এমন খবর ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এরপরেই নড়েচড়ে বসে রেল কর্তৃপক্ষ। সমস্ত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল রেলের তরফে।

আরও পড়ুন: মিলছে না বার্ধক্য ও বিধবা ভাতা, ক্ষুব্ধ প্রবীণ নাগরিকরা

যদিও রেলের তরফ থেকে প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছে, ট্রেনের নাম বদলের অভিযোগ ঠিক নয়। করোনা পরিস্থিতিতে সব ট্রেনকেই মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন হিসেবে চালানো হচ্ছে। ট্রেনের ভাড়াও পুরনো ট্রেনের চেয়ে বেশি। রাজধানী, শতাব্দী বা দুরন্তের মতো ট্রেনও বিশেষ ট্রেন হিসেবে চালানো হচ্ছে। তাই এক্সপ্রেসের নাম বদল নিতান্তই তাৎক্ষণিক। পূর্ব রেলের টুইটারে এই বিবৃতি দেখে নেটনাগরিকরা মনে করছেন, চাপের মুখে ডিগবাজি খেয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। তাঁদের দাবি, সাড়ে তিন দশকের পুরনো শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেসের নাম এবং ঐতিহ্য যতটা দ্রুত সম্ভব ফিরিয়ে দেওয়া হোক, ফিরিয়ে দেওয়া হোক। শোনা যাচ্ছে যে, প্রতিবাদের আঁচ এতটাই তীব্র ছিল যে, ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে রবীন্দ্রনাথের ছবি। তবে নামকরণ এখনও অপরিবর্তিতই রয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *