যশ মোকাবিলায় তিন রাজ্যের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন অমিত শাহ

Mysepik Webdesk: বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় যশ ধেয়ে আসছে ওড়িশা-পশ্চিমবঙ্গের উপকূল এলাকায়। সোমবার রাতের দিকে সেটি আরও শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে চলেছে। বুধবার দুপুরে সেটি দিঘা থেকে বালাসোরের মাঝে স্থলভূমিতে আছড়ে পড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। জানা গিয়েছে, ওই সময় ঘূর্ণিঝড়টির গতিবেগ থাকবে ঘন্টায় ১৮০ থেকে ১৯০ কিলোমিটার পর্যন্ত। ঘূর্ণিঝড়ের বিস্তৃতি অনেকটাই বেশি বলে এর ফলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও অনেক বেশি হবে বলে আশঙ্কা করছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।

আরও পড়ুন: দিল্লিতে আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হল লকডাউন

এদিকে ‘যশ’ -এর মোকাবিলায় ঠিক কতটা প্রস্তুত রাজ্যগুলি, সেই নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সে পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে একটি বৈঠকে বসবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। পাশাপাশি আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের উপরাজ্যপালের সঙ্গেও বৈঠকে বসবেন তিনি। সূত্রের খবর, সম্ভবত সোমবারের ওই বৈঠকে থাকবেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর পরিবর্তে বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: ‘উন্নয়নবিরোধী’ এক প্রকৃতিপ্রেমিক মানবদরদি সুন্দরলাল বহুগুনা

ইতিমধ্যেই ঝড়ের মোকাবিলায় ও ঝড়ের ফলে ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে রবিবার বৈঠক করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং বিদ্যুৎ, টেলিকম বিভাগের আধিকারিকরা। টুইটারে প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, “ঘূর্ণিঝড় যশের ফলে সম্ভাব্য পরিস্থিতি মোকাবিলার যাবতীয় প্রস্তুতি পর্যালোচনা করা হয়েছে। প্রভাবিত এলাকার বাসিন্দাদের সাহায্য করার জন্য কি কি উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, তা জানানো হয়েছে। নিরাপদ জায়গায় মানুষকে দ্রুত সরিয়ে নিয়ে যাওয়া, বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ ব্যবস্থা যাতে বিঘ্নিত না হয় তা নিশ্চিত করার উপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সংশ্লিষ্ট এলাকার কোভিড-১৯ এ সংক্রমিতদের চিকিৎসায় যাতে ব্যাঘাত না ঘটে, সেদিকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।সকলের নিরাপত্তা ও কল্যাণ কামনা করি।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *