আর মাত্র কয়েকদিন পরেই মহালয়া: জেনে নিন দিনক্ষণ, গুরুত্ব

Mahalaya

Mysepik Webdesk: পুজোর কাউন্ট ডাউন শুরু হয়ে গেছে। আর মাত্র কয়েকদিন পরেই মহালয়া। মহালয়া শব্দটির অর্থ হল মহান আলয় বা আশ্রম। এক্ষেত্রে দেবী দুর্গাই হলেন, সেই মহান আলয়। আক্ষরিক অর্থে মহালয়ার দিন থেকেই পিতৃপক্ষের অবসান হয়ে সূচনা হয় মাতৃপক্ষের। এদিনই দেবীর দুর্গার চক্ষুদান হয়। মহালয়ার দিন পূর্বপুরুষদের উদ্দেশ্যে তর্পণ করার রীতি প্রচালিত আছে।

আরও পড়ুন: পটনার ঐতিহাসিক গান্ধি ময়দানে এবার হবে না রাবণ বধ

এক নজরে মহালয়া ২০২১-এর দিনক্ষণ:

৬ অক্টোবর, বুধবার (১৯-এ আশ্বিন) হচ্ছে এ বছরের মহালয়া।

বিশুদ্ধ পঞ্জিকা মতে: ৫ অক্টোবর মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭.০৬ মিনিট মহালয়ার অমাবস্যা তিথি শুরু হচ্ছে। থাকবে বুধবার ৬ অক্টোবর বিকেল ৪.৩৫ মিনিট পর্যন্ত।

আরও পড়ুন: ‘মিনি বেঙ্গল’ ধানবাদে খুঁটি পুজো ঘিরে উন্মাদনা

পৌরাণিক বিশ্বাস অনুযায়ী, ত্রিদেব­— ব্রহ্মা, বিষ্ণু এবং মহেশ্বর অত্যাচারী দানব মহিষাসুরকে বধ করার জন্য মা দুর্গাকে সৃষ্টি করেছিলেন। মহিষাসুর বর পেয়েছিলেন যে, কোনও দেবতা বা মানুষ তাঁকে হত্যা করতে পারবেন না। এমন বর পাওয়ার পর মহিষাসুর অসুরদের রাজা হয়ে দেবতাদের আক্রমণ করেন। দেবতারা যুদ্ধে হেরে যান এবং দেবলোকে মহিষাসুর দ্বারা শাসিত হন। মহিষাসুর থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সমস্ত দেবতা ব্রহ্মা, বিষ্ণু, মহেশ্বরের সঙ্গে আদি শক্তির পূজা করেছিলেন। এই সময় সমস্ত দেবতার দেহ থেকে একটি ঐশ্বরিক রশ্মি নির্গত হয়ে দেবী দুর্গার রূপ ধারণ করেছিল। দেবতাদের দেওয়া অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত মা দুর্গা দশ দিন ভয়াবহ যুদ্ধের পর মহিষাসুরকে বধ করেন। প্রকৃতপক্ষে, মহালয়া পৃথিবীতে মা দুর্গার আগমনকে নির্দেশ করে। মা দুর্গাকে শক্তির দেবী বলে মনে করা হয়।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *