অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের স্কুলগুলিতে কৃপাণ রাখায় নিষেধাজ্ঞা, ভারত সরকারের হস্তক্ষেপের দাবি জানাল ক্ষুব্ধ শিখ সংগঠন

Mysepik Webdesk: অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্য সরকার (এনএসডব্লিউ) স্কুলে কৃপাণ রাখা নিষিদ্ধ করেছে। ভারতের শিরোমণি গুরুদোয়ারা প্রবন্ধক কমিটি (এসজিপিসি) এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে। তারা ভারত সরকারের হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছে। ঘটনার সূত্রপাত কিছুদিন আগের। একজন শিখ সম্প্রদায়ের ছাত্র নিজের ওপর আক্রমণের পরে প্রতিরক্ষার জন্য ১৬ বছর বয়সি এক ছাত্রর ওপর আক্রমণ করেছিল। ঘটনাটি গ্লেনউড হাইস্কুলের।

আরও পড়ুন: গাজার বৃহত্তম লাইব্রেরি ধূলিসাৎ

নিউ সাউথ ওয়েলস সরকারের সিদ্ধান্তের বিষয়ে ভারতে শিরোমণি গুরুদোয়ারা প্রবন্ধক কমিটি (এসজিপিসি) গভীর অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। ভারত সরকারের কাছে হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছে এসজিপিসি। সংগঠনটি বলেছে যে, কেন্দ্রীয় সরকারকে অস্ট্রেলিয়ান সরকারের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে নিষেধাজ্ঞা অপসারণ করা উচিত। অস্ট্রেলিয়ান শিখ অ্যাসোসিয়েশনও এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছে ।

আরও পড়ুন: ফ্রান্সের খসড়া প্রস্তাবে বাধ সাধল আমেরিকা

অ্যাসোসিয়েশনের সচিব প্রীতপাল সিং বলেছেন, ‘‘নিউ সাউথ ওয়েলস সরকার তাড়াহুড়ো করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী স্কুলে কৃপাণ নিষিদ্ধ করেছেন। আমরা রায়টির বিরোধিতা করি।” প্রীতপাল আরও বলেন, ‘‘এটি তাড়াহুড়ো করে নেওয়া সিদ্ধান্ত এবং একতরফা নিষেধাজ্ঞা। এ নিয়ে কেন কোনো শিখ সম্প্রদায়ের সঙ্গে আলোচনা করা হয়নি? যে ছাত্রটি হামলায় দায়ে অভিযুক্ত, তাকে নিয়ে স্কুলে ঠাট্টা-মশকরা চলত। আক্রমণে অন্য ছাত্র আহত হয়েছে বলে আমরা দুঃখিত।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *