Breaking: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে নবান্ন থেকে ঘোষণা: আইএসএলে ইস্টবেঙ্গল

Mysepik Webdesk: এটিকের সঙ্গে মোহনবাগান মার্জ হয়ে যাওয়ার পর কলকাতার সবুজ মেরুন ক্লাবের আইএসল খেলা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল আগেই। কিন্তু তারপর থেকেই তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব ইস্টবেঙ্গল নিয়ে চলছে চাপান-উতোর। কখনও কখনও মনে হয়েছে যে, ইস্টবেঙ্গলকে এবার আই লিগ খেলেই সন্তুষ্ট থাকতে হবে। কখনও আবার মনে হয়েছে লাল হলুদ ক্লাব সমস্ত সমস্যা মিটিয়ে আইএসএল খেলবে। শেষমেশ আইএসএলে নামতে চলেছে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।

আরও পড়ুন: ইউএস ওপেন: ম্যাচ জিতে ৭ বছরের খরা কাটালেন সুমিত নাগাল

ভারতীয় ফুটবলে ইস্টবেঙ্গলকে নিয়ে যথার্থই মেঘ-রোদের খেলা চলছে। একবার খবর শোনা যায় যে, নতুন মরশুমে লাল-হলুদ শিবিরকে পড়ে থাকতে হবে আই লিগের আঙিনায়। পরক্ষণেই শতবর্ষের ইস্টবেঙ্গলের এবছরই আইএসএল খেলার সম্ভাবনা উঁকি দিতে শুরু করে।

ক’দিন আগেই আইএসএলের আয়োজক সংস্থা ফুটবল স্পোর্টস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড ১০ দলের টুর্নামেন্ট আয়োজিত হবে বলে স্থির করে ফেলে। ফলে আই লিগেই ইস্টবেঙ্গলের ঠাঁই হচ্ছে বলে ধরে নেয় ভারতীয় ফুটবলমহল। এবার নতুন করে সম্ভাবনা দেখা দেয় আসন্ন মরশুমেই ইন্ডিয়ান সুপার লিগে লাল-হলুদ জার্সি দেখতে পাওয়ার। শোনা যাচ্ছে যে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং এফএসডিএলের চেয়ারপার্সন নীতা আম্বানির ভূমিকা এক্ষেত্রে অনস্বীকার্য।

আরও পড়ুন: ইউএস ওপেন: রেকর্ড গড়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে সেরেনা উইলিয়ামস, বিদায় ভেনাসের

মূলত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগেই এবছর স্পনসরশিপ পেয়ে গেল ইস্টবেঙ্গল। শ্রী সিমেন্ট তাদের নতুন বিনিয়োগকারী। শ্রী সিমেন্টের হাতে থাকবে ৮৫ শতাংশ শেয়ার। বাকি ১৫ শতাংশ শেয়ার থাকবে লাল হলুদ ক্লাবের হাতে।

হঠাৎ করে এই সম্ভাবনার তৈরি হয়েছে ইস্টবেঙ্গল নতুন বিনিয়োগকারী খুঁজে পাওয়ায়। আনন্দবাজারে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, বাংলারই এক বাণিজ্যিক সংস্থার সঙ্গে স্পনসরশিপ চুক্তি সই করতে চলেছে ইস্টবেঙ্গল। এবং এর পিছনেও নাকি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং এফএসডিএলের চেয়ারপার্সন নীতা আম্বানির ভূমিকা রয়েছে। এক্সিকিউটিভ বোর্ডে স্পনসরদের ৬ জন এবং ইস্টবেঙ্গলের ২ জন প্রতিনিধি থাকবেন বলে খবর।

এদিন বিকেল চারটায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে নবান্ন থেকে ঘোষণা হয়ে গেল আইএসএল খেলছে ইস্টবেঙ্গল। এই ঘটনায় স্বভাবতই খুশি লাল হলুদ জনতা। তাঁরা কৃতজ্ঞ মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি। এবছর ইস্টবেঙ্গল না খেললে ডার্বি ঢাকা পড়ত কালো ধোঁয়াশায়। তবে আশঙ্কার সেই মেঘ কাটল।

উল্লেখ্য যে, শ্রী সিমেন্টের মালিক বেণু গোপাল বাঙ্গুর। তিনি ভারতের অন্যতম একজন ধনী ব্যবসায়ী। তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ ৬৭০ কোটি মার্কিন ডলার। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “শতবর্ষের একটি ক্লাব আইএসএল খেলবে না, তা আমরা চাইনি। ইনভেস্টরের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে ইস্টবেঙ্গলের। এবারের আইএসএল খেলছে ইস্টবেঙ্গল।”

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, “যে অনিশ্চয়তার মেঘ ছিল, তা আর নেই। মেঘ সরে গিয়ে নতুন সকাল, নতুন সূর্য উঠেছে। আমরা সব ক্লাবকে ভালোবাসি। মোহনবাগান, ইস্টবেঙ্গল, মহামেডানের নামে গেট হবে। এবার আইএসএলে ডার্বি হবে। ফুটবল ছাড়া বাঙালি অসম্পূর্ণ। প্রতিযোগিতামূলক মানসিকতা নিয়ে খেলা হোক। অতিমারিতে অনেকে এগিয়ে এসেছেন। বাংলা গোটা দেশকে পথ দেখায়। যেহেতু রাষ্ট্রীয় শোক চলছে, তাই সেলিব্রেশনটা পরে হবে। সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।” উপস্থিত ইস্টবেঙ্গল কর্তা বলেন, “কয়েকটা সমস্যা ছিল, দিদির হস্তক্ষেপে তা কেটে গিয়েছে।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *