‘অপু’, ‘ফেলুদা’, ‘ক্ষিদ্দা’, ‘উদয়ন পণ্ডিত’ সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় আজ স্থান নিলেন ইতিহাসের পাতায়

Mysepik Webdesk: চলে গেলেন বাংলা চলচ্চিত্র জগতের বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তিনি প্রাথমিকভাবে করোনা আক্রান্ত হয়ে বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি হন। তাঁর হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার খবর প্রকাশে আসার পর থেকেই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিলেন তাঁর অগণিত গুণমুগ্ধ। আজ দুপুর ১২.১৫ মিনিটে প্রয়াত হলেন অভিনেতা। বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।

আরও পড়ুন: একটু অন্যরকম গল্পের স্বাদ পেতে দেখতে পারেন চার পর্বের ওয়েব সিরিজ গরিবের ডার্ক ‘JL50’

The World of Apu (1959)

১৯ জানুয়ারি, ১৯৩৫ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। অভিনয় ছাড়াও আবৃত্তি শিল্পী হিসেবেও তাঁর নাম অত্যন্ত সম্ভ্রমের সঙ্গেই উচ্চারিত হয়। সত্যজিৎ রায় পরিচালিত ৩৪টি সিনেমার মধ্যে ১৪টিতে অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। এছাড়াও থিয়েটার জগতেও তিনি এক উল্লেখযোগ্য নাম।

Satyajit Ray's Feluda turns 50 | Business Standard News

১৯৫৯-এ সত্যজিৎ রায়ের ‘অপুর সংসার’ ছবি দিয়ে সিনেমা জগতে পা রাখেন সৌমিত্রবাবু। তিনি এর আগে রেডিয়োর ঘোষক ছিলেন এবং মঞ্চে ছোট চরিত্রে অভিনয় করতেন। ১৯৭৪ সালে রিলিজপ্রাপ্ত ‘সোনার কেল্লা’ ছবিতে সত্যজিৎ রায়ের নিজের সাহিত্য সৃষ্ট ফেলুদা চরিত্রে অভিনয় করে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন স্টুডিয়ো পাড়ার পুলুদা ওরফে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। ১৯৮০-তে মুক্তিপ্রাপ্ত সত্যজিৎ রায়ের ছবি ‘হীরক রাজার দেশে’-তে উদয়ন পণ্ডিতের ভূমিকায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অভিনয় আজও ভুলতে পারে না চলচ্চিত্র মহল থেকে দর্শকমণ্ডলী। ‘শাখা প্রশাখা’ (১৯৯০) চলচ্চিত্রে এই কালজয়ী পরিচালকের সঙ্গে সৌমিত্রবাবু শেষবারের মতো অভিনয় করেন।

আরও পড়ুন: শুরু হতেই চূড়ান্ত অশ্লীলতার অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় বিগ বস বয়কটের ডাক

Veteran Bengali Actor Soumitra Chatterjee Tests Positive for COVID-19

চলতি বছরের ৫ অক্টোবর এই বর্ষীয়ান অভিনেতার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তিনি কোভিড এনসেফেলোপ্যাথিতে ভুগছিলেন। কিন্তু পরে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় সৌমিত্রবাবুকে আটিইউতে স্থানান্তরিত করা হয়। পরে করোনা থেকে বেরিয়ে এলেও সৌমিত্রবাবুর মস্তিষ্ক এবং স্নায়ু চিকিৎসায় সাড়া দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছিল।

Feluda turns 50 - The Hindu

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক পরিস্থিতি প্রতি মুহূর্তে পর্যবেক্ষণ করার জন্যে ১২ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছিল বেলেভিউ হাসপাতালে। চিকিৎসকদের মরিয়া প্রয়াসকে ব্যর্থ করে এদিন বেলায় তিনি অনন্তলোকে যাত্রা করেন।

The Elephant God, the Indian Crime film by Satyajit Ray | Fandor

কোনি সিনেমাতে ‘ক্ষিদ্দা’র ভূমিকায় অভিনয় করা সোমিত্র চট্টোপাধ্যায় তাঁর সাঁতারের ছাত্রী কোনিকে দশ জনের এক জন করার জন্য বলেছিলেন, ‘ফাইট কোনি ফাইট’। কিন্তু জীবনযুদ্ধে তিনি সেই ‘ফাইটে’ জয়ী হতে পারলেন না। তিনি ভূষিত হয়েছেন বহু আন্তজার্তিক এবং জাতীয় পুরস্কারে। তবে সবথেকে বড় স্বীকৃতি সম্ভবত মানুষের ভালোবাসা, যা থেকে জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বঞ্চিত হননি তিনি। নিশ্চিতভাবে বলা যায়, আগামী দিনে এই ভালোবাসা এবং সম্মান আরও বৃদ্ধি পাবে সন্দেহ নেই। কারণ আজ থেকে বাঙালির ইতিহাসের এই উজ্জ্বল নক্ষত্রের নাম যে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

2 comments

  • Suranjana Ghosh

    Onar atmar shanti kamona kori …

  • Sri Nabarun Chakraborty

    বাঙালি ও বাংলা চলচ্চিত্রে যাদের নাম উজ্বল তাঁদের তিনজনের শেষজন আজ চলে গেলেন। সত্যজিৎ রায় উত্তম কুমার এবং সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়।

    স্মৃতি যেন আমারে হৃদয়ের বেদনায় রঙে রঙে ছবি আঁকে …..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *