ইকুয়েডরকে হারিয়ে সেমিফাইনালে পৌঁছনো আর্জেন্টিনার সামনে এবার কলম্বিয়া

Mysepik Webdesk: কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালে ইকুয়েডরকে ৩-০ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠে এলো আর্জেন্টিনা। এই জয়ের ক্ষেত্রে লিওনেল মেসির ভূমিকা ছিল অনস্বীকার্য। তিনি করলেন একটি গোল এবং বাকি দু’টি গোলের ক্ষেত্রেও তাঁর ভূমিকা ছিল। সেমিফাইনালে লিওনেল স্কালোনির ছেলেরা মুখোমুখি হবেন কলম্বিয়ানর বিরুদ্ধে। কারণ, অন্য একটি কোয়ার্টার ফাইনালে উরুগুয়েকে টাইব্রেকারে ৪-২ ব্যবধানে হারিয়ে দিয়েছে কলম্বিয়া।

আরও পড়ুন: দশ জনে খেলে চিলিকে হারিয়ে কোপার শেষ চারে ব্রাজিল

এদিন আর্জেন্টিনীয় কোচ দল নামিয়েছিলেন ৪-৩-৩ ছকে। শুরুতেই সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি। ২২ মিনিটের মাথায় ইকুয়েডরের ডিফেন্ডার গ্রুয়েজোর একটি লম্বা ব্যাকপাস পেয়ে যান আর্জেন্টিনীয় দলনায়ক। গোলকিপারকে পরাস্ত করে মেসি যে শটটি নিয়েছিলেন, তা প্রতিহত হয় বার পোস্টে লেগে। তবে ম্যাচের ৪০ মিনিটে প্রথম গোলটি পায় আর্জেন্টিনা। গোলের রাস্তা খুলে দেন সেই মেসিই। তাঁর অনবদ্য ডিফেন্স-চেরা পাস থেকে স্কোরলাইন আর্জেন্টিনার পক্ষে ১-০ করেন রড্রিগো ডি পল। প্রথমার্ধের খেলা শেষ হয়।

আরও পড়ুন: বিশ্বের এক নম্বর দলকে হারিয়ে ইউরোর সেমিতে ইতালি

দ্বিতীয়ার্ধে ইকুয়েডর বেশকিছু আক্রমণ তুলে আনলেও তাতে কাজের কাজ কিছু হয়নি। এরমধ্যে ৫৭তম মিনিটে ইকুয়েডরের স্ট্রাইকার ভ্যালেন্সিয়ার শট কর্নারের বিনিময়ে কোনও মতে বাঁচান আর্জেন্টিনার গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। ৭৪ মিনিটে ভ্যালেন্সিয়ার সামনে আবার একটি সুযোগ চলে এলেও তা থেকে গোল করতে পারেননি তিনি। অন্যদিকে, আর্জেন্টিনার পক্ষে ৬৪ মিনিটে সুযোগ হারান আকাশি-সাদা জার্সিধারী ফরোয়ার্ড গঞ্জালেস। এরপর ‘এলএম১০’ লিওনেল মেসি গোল লক্ষ্য করে যে শটটি নিয়েছিলেন, তা সামান্যের জন্য লক্ষ্যচ্যুত হয়।

আরও পড়ুন: টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠে এলেন কেন উইলিয়ামসন

সেই সময় পর্যন্ত খেলা চলছিল তুল্যমূল্য। আক্রমণ-প্রতিআক্রমণে কখনও আর্জেন্টিনার পাল্লা ভারী হচ্ছিল তো কখনও ইকুয়েডরের। তবে ৮৪ মিনিটে মেসির একটা ব্যাক হিল ম্যাচের তফাত গড়ে দেয়। এক্ষেত্রে ইকুয়েডরের ডিফেন্ডার পিয়েরো হিনকাপেই করে ফেলেন একটা অমার্জনীয় ভুল। তিনি সতীর্থ গোলকিপারের কাছ থেকে বল পেয়ে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি। লিওনেল মেসি ইকুয়েডরের ডিফেন্ডারের কাছ থেকে বল ছিনিয়ে নিয়ে অসামান্য দক্ষতায় পাস বাড়ান মার্টিনেজকে লক্ষ্য করে। আর্জেন্টিনার এগিয়ে যায় ২-০ গোলে।

আরও পড়ুন: চোট পেয়ে ইংল্যান্ড সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন শুভমন গিল

আর্জেন্টিনার তৃতীয় গোলটির ক্ষেত্রে কোনও প্রশংসাই যথেষ্ট নয়। দ্বিতীয়ার্ধের সংযুক্ত সময়ে ডি-বক্সের বাইরে একটি ফ্রি-কিক পায় আর্জেন্টিনা। ডি-বক্সের বাইরে ডি মারিয়াকে ইকুয়েডরের ডিফেন্ডার হিনকাপেই অবৈধভাবে ফেলে দিলে তাঁকে লাল কার্ড দেখান রেফারি। ফ্রি-কিক থেকে বাঁকানো শটে অনবদ্য গোল করেন ‘ঈশ্বরের বরপুত্র’ মেসি। এটি চলতি কোপা আমেরিকা ফুটবল টুর্নামেন্টের মেসির চতুর্থ গোল। আর এই জয়ের পরে টানা ১৮ ম্যাচের অপরাজিত থাকল আর্জেন্টিনা।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *