আফগান বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি তল্লাশি সশস্ত্র তালিবানের

Mysepik Webdesk: আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনী প্রত্যাহারের পরেই দ্রুত আফগানিস্তান নিজেদের দখলে আনে তালিবান। এরপর অন্য দেশে আশ্রয় নেন প্রেসিডেন্ট আশরফ গনি। তালিবানি সশস্ত্র আক্রমণের ভয়ে আফগানিস্তানের বাসিন্দাদের দেশ ছাড়ার হিড়িক পড়ে যায়। এরই মধ্যে আমেরিকার একটি সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে, সশস্ত্র তালিবান বর্তমানে আফগান বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি তল্লাশি চালাচ্ছে, যারা গত ২০ বছর ধরে মার্কিন সেনাবাহিনীকে সাহায্য করে এসেছে।

আরও পড়ুন: সালিমা কাহানি: গোটা বিশ্বের নজর যে আফগান মহিলা রাজনীতিবিদের ভবিষ্যতের দিকে

তল্লাশি চালানোর পাশাপাশি চলছে অবর্ণনীয় অত্যাচারও। কাউকে সন্দেহ করলেই তাকে বাড়ির বাইরে নিয়ে আসা হচ্ছে। হাত বেঁধে দেওয়ালের দিকে মুখ করে বসিয়ে রাখা হচ্ছে। ওই ব্যক্তির দিকে তাক করে রাখা হচ্ছে বন্ধুকের নল। সম্প্রতি, এই ধরনের ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরালও হয়েছে। তালিবান মূলত সেইসব ব্যক্তিদেরই খুঁজছে যারা এতদিন পর্যন্ত মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনীকে প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে সাহায্য করে এসেছে।

আরও পড়ুন: কাবুল যখন কণ্টকময়: এক সিনেমাওয়ালির আঁখো দেখা হাল

জানা গিয়েছে, বর্তমানে তালিবান আফগানিস্তানের একাধিক শহরে মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনীকে সাহায্যকারী ব্যক্তিদের নামের তালিকা তৈরি করছে। তালিবান সদস্যরা তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোঁজ চালাচ্ছে। পরিবারের লোকজনদের রীতিমতো হুমকিও দিচ্ছে। যদিও আফগানিস্তান দখলের পর তালিবান মুখপাত্র প্রেস কনফারেন্সে জানিয়েছিলেন, তাঁরা সকলকেই ক্ষমা করে দিতে চান। আফগানিস্তানে তালিবানি শাসনকালে শান্তি বজায় রাখতে চান। কিন্তু বাস্তবে চিত্রটা কিন্তু সম্পূর্ণ উল্টোই দেখা যাচ্ছে। ২০ বছর আগেকার সেই নৃশংস তালিবানি অত্যাচারের ভয়াবহতাই যেন ফিরে আসছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *