নিজেদের ভাবমূর্তি ফেরাতে মরিয়া চেষ্টা, পাকিস্তানে মাসুদ আজহারের বিরুদ্ধে জারি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

Mysepik Webdesk: সন্ত্রাসে আর্থিক মদত দেওয়া ও আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৮ সালের জুন মাসে ধূসর তালিকাভুক্ত করা হয় পাকিস্তানকে। জৈশ-ই-মহম্মদের প্রধান, ভারতে একাধিক জঙ্গি হামলার মূল মাথা মাসুদ আজহার তাদের দেশে নেই, এতদিন পর্যন্ত এটাই দাবি করে এসেছে পাকিস্তান। তবে ক্রমশ চাপ বাড়তে থাকায় পরে তারা মানতে বাধ্য হয়, মাসুদ আজাহার তাদের দেশেই রয়েছে। শুধু তাই নয়, মাসুদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাও জারি করেছে পাকিস্তান সরকার। তবে কূটনৈতিকদের মতে, এর পেছনে পাকিস্তানের আসল উদ্দেশ্য হল রাষ্ট্রসংঘে নিজেদের ভাবমূর্তি ফেরানো।

আরও পড়ুন: ক্যাপিটল হিলে হামলাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ পতন বলে মনে করছে চিন

চীনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক মামলা করবে ৮৫টি দেশ - এসো গল্প করি

সম্প্রতি ‘সানডে গার্ডিয়ান’ পত্রিকায় প্রকাশিত একটি রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে, ‘আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী’ তকমা পাওয়া ওই জঙ্গি নেতা পাকিস্তানেই রয়েছে। এদিকে ধূসর তালিকা থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য পাকিস্তানকে বেশ কয়েকটি অ্যাকশন প্ল্যান মেনে চলতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। লকডাউনের জন্য তার ডেডলাইন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত পাকিস্তান ২৭টি অ্যাকশন প্ল্যানের মধ্যে বেশ কয়েকটি মেনে চললেও সন্ত্রাস দমনের ক্ষেত্রে অ্যাকশন প্ল্যান কার্যকর করতে পারেনি। তাই এখনও পর্যন্ত রয়ে গিয়েছে ধূসর তালিকায়। আর এই তালিকা থেকে বেরতে হলে সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতেই হবে পাকিস্তানকে। প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে সংসদে হামলা, ২০০৮ সালে মুম্বই হামলার মতো ভারতের একাধিক জঙ্গি হামলার সঙ্গে সরাসরি জড়িত আজহার।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *