Latest News

Popular Posts

শবদেহ নিয়ে শ্মশানে যাওয়ার সময় গাড়ি উল্টে মৃত্যু ১৮ জনের, আহত অনেকে

শবদেহ নিয়ে শ্মশানে যাওয়ার সময় গাড়ি উল্টে মৃত্যু ১৮ জনের, আহত অনেকে

Mysepik Webdesk: সাতসকালেই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটল। শবদেহ নিয়ে নবদ্বীপ শ্মশানে যাওয়ার সময় গাড়ি উল্টে মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের। আহত অনেকেই। আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ফলে, মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আহতদের উদ্ধার করে দ্রুত শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে কয়েকজনকে উদ্বেগজনক অবস্থায় কলকাতার হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার হাঁসখালির ফুলবাড়ি এলাকায়। গোটা গ্রামে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

আরও পড়ুন: অ্যাপের মাধ্যমেই মিলবে অ্যাম্বুলেন্স, নয়া পরিষেবা চালু রাজ্যের পাঁচটি বড়ো শহরে

সূত্রের খবর, একটি লরি ভাড়া করে মৃতদেহ দাহ করতে নবদ্বীপের শ্মশানে যাচ্ছিলেন ৩৫ জন ব্যক্তি। তাঁদের মধ্যে কেউ কেউ ছিলেন মৃতের পরিবারের লোক আবার কেউ কেউ ছিলেন গ্রামের লোক। রাত দু’টো নাগাদ শ্মশানে যাওয়ার সময় হাঁসখালি-কৃষ্ণনগর রাজ্য সড়কে ফুলবাড়ির কাছে দুর্ঘটনার সম্মুখীন হয় ওই লরিটি। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সেটি ধাক্কা মারে একটি পাথর বোঝাই লরিতে। এর ফলে যাত্রীবোঝাই লরিটি উল্টে যায় এবং লরিতে থাকা যাত্রীরা রাস্তার ওপর ছিটকে পড়েন।

আরও পড়ুন: মা ও দুই শিশু কণ্যা সন্তানের আগুন পুড়ে তিনজনের মর্মান্তিক মৃত্যু কান্দির গাঁতলায়

পুলিশের দাবি, মৃত ১৮ জনের মধ্যে রয়েছেন ৬ জন মহিলা ও কয়েকটি শিশু। আহতদের মধ্যে ৪ জনের অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, গভীর রাতে আচমকা বিকট শব্দ হওয়ায় তাঁরা বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসেন। তখনই তাঁরা দুর্ঘটনাগ্রস্ত লরিটি দেখতে পান। তাঁরাই প্রথম উদ্ধারকার্যে হাত লাগান। পুলিশে খবর দেওয়া হলে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় পুলিশ। তবে, কিভাবে এই দুর্ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পুলিশের অনুমান, ঘন কুয়াশার জন্য লরিটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাথর বোঝাই লরিকে ধাক্কা মারার ফলেই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *