ময়নাতদন্তে ধর্ষণের কোনও চিহ্ন পাওয়া যায়নি, হাথরস কাণ্ডে দাবি উত্তর প্রদেশে পুলিশের

Mysepik Webdesk: উত্তরপ্রদেশের হাথরসে গণধর্ষিতা হওয়া কিশোরীর শরীরে ধর্ষণের কোনও চিহ্ন পাওয়া যায়নি, এমনটাই দাবি করল উত্তর প্রদেশে পুলিশ। এদিকে মেরুদণ্ডের হাড় ভেঙে যাওয়ায় তীব্র শ্বাসকষ্ট, দু’পায়ে এবং একটি হাতে পক্ষাঘাত, জিভে মারাত্মক ক্ষত-সহ সাংঘাতিক জখম ও নগ্ন অবস্থায় বাজরার খেত থেকে নির্যাতিতা মেয়েটির হদিস মেলে। অথচ পুলিশের দাবি, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে বলা হয়েছে শরীরের একাধিক জায়গায় চোটের চিহ্ন থাকলেও ধর্ষণের কোনও প্রমাণ মেলেনি।

আরও পড়ুন: রাহুল গান্ধী-প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে গ্রেফতার করল পুলিশ, পায়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন হাথরস

পুলিশের দাবি, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে শরীরের একাধিক জায়গায় চোটের চিহ্ন থাকলেও ধর্ষণের কোনও চিহ্ন পাওয়া যায়নি। উত্তরপ্রদেশ পুলিসের শীর্ষকর্তা এডিজি-র দাবি, নির্যাতিতার শরীরে ধর্ষণের কোনও প্রমাণ মেলেনি। তবে তাকে যে খুন করা হয়েছে, তার তদন্ত চলছে। এদিকে আগে পুলিশের রিপোর্টেই উল্লেখ ছিল, ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে খুনের চেষ্টা করা হয় ওই তরুণীকে। এমনকী মৃত্যুর আগে নিজের জবানবন্দিতে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দেওয়া বয়ানে ধর্ষকদের নামও বলে গিয়েছেন সেই তরুণী। শুধু তাই নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োতেও ওই তরুণীকে ধর্ষণ হওয়ার কথা বলতে শোনা গিয়েছে। অথচ ময়না তদন্তের রিপোর্টে ধর্ষণের কোনও উল্লেখই নেই। আর এই বিষয়টিকেই হাতিয়ার করে পুলিশ জানাল, অহেতুক ধর্ষণের প্রসঙ্গ তুলে যারা পরিস্থিতি জটিল করে তুলতে চাইছেন, তাদের বিরুদ্ধে নাকি কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *