পুরনো ভোটার লিষ্ট প্রকাশ্যে এনে সচেতনতা নানুরের গ্রামে

বোলপুর, ২৫ আগস্ট: এনআরসি হোক কিংবা না হোক, আগাম সর্তকতা হিসেবে পুরনো ভোটার লিষ্টকে প্রকাশ্য স্থানে লাগিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের সচেতন করার প্রয়াস নিয়েছে বোলপুরের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এ্যালাইভ ইন্ডিয়া চ্যারিটেবল ট্রাষ্ট। এই প্রসঙ্গে সংগঠনের সম্পাদক প্রাক্তন ভারতীয় নৌসেনা আধিকারিক মহম্মদ আলী বলেন, “এনআরসি হোক বা না হোক বড় সেটা বিষয় নয়, মানুষকে সচেতন করতে তাদের গ্রাম, এলাকার পুরাতন রাজনৈতিক মানচিত্র বুঝতে ও পূর্ব পুরুষদের নাম ভোটার লিষ্টে কি ভাবে ছিল তা জানাতে বাসিন্দাদের সচেতন করতেই এই প্রচার হচ্ছে।”

আরও পড়ুন: মঙ্গলে জমি কিনলেন শ্রীরামপুরের শৌনক দাস, জানেন দাম কত পড়ল

নানুরের সাকোড্ডা গ্রামের বিশ্ব ভারত সমিতি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার ইউনিটের মাধ্যমে তার প্রচার চলছে। গ্রামের মসজিদের বাইরে, যেখানে সমস্ত গ্রামবাসী অবলীলায় আসতে পারেন, সেরকম জায়গায় এই পুরনো ভোটার লিষ্ট লাগানো হয়েছে। এই সঙ্গে সমাজকর্মী মহম্মদ আলী বলেন, “সমাজে শিক্ষিত অশিক্ষিত দু’ধরনের লোক রয়েছে। অশিক্ষিতরা এখনও তাদের নিজেদের নামের বানানটা পরিস্কার ভাবে বলতে পারেন না। আজও অন্যের উপর ভরসা করেন। যার ফলে তাদের আধার, ভোটার কার্ডে নামের বানান ভুল হয়। অন্যদিকে রয়েছে শিক্ষিত সমাজ। তাদেরও একটা সামাজিক দায়বদ্ধতা রয়েছে। অশিক্ষিতদের মানুষদের সমস্ত কাগজ পত্রে যাতে নাম ঠিক থাকে, পূর্ব পুরুষদের নামের তালিকা থাকে সেই ব্যাপারে শিক্ষিত ছেলেদেরকেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তারাও কাজটা যথেষ্ট দায়িত্ব সহকারে করছেন।”

আরও পড়ুন: কর্মসংস্থান বাড়াতে সবুজসাথী সাইকেল কারখানা তৈরি হবে এরাজ্যেই

উল্লেখ্য, এনআরসি আতঙ্কে মানুষ নিজেদের ভোটার, আধার কার্ড নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করে বেড়ায়। পাশাপাশি পুরনো নথিপত্র জোগাড় করতে হিমশিম খেয়ে যায়। যদিও করোনা আবহে সেই আতঙ্ক এখন আর নেই। আয়োজকরা বলছেন, আতঙ্কে নয়, সচেতন হন। সচেতন হয়ে নিজের সব কিছু ঠিকঠাক রাখুন। যারা অশিক্ষিত মানুষ, তাদেরকে সাহায্য করা এবং ভয় না দেখিয়ে সচেতন করাই এই প্রচারের মূল উদ্দেশ্য বলে জানান মহম্মদ আলী।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *