সিকিমকে হারিয়ে সন্তোষ ট্রফির মূলপর্বে বাংলা

Mysepik Webdesk: ম্যাচের ফল দেখে মনে হবে বাংলা কোনোক্রমে জিতেছে। কিন্তু আসলে তা নয়। আজ কল্যাণীর মাঠে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে সিকিমকে হারিয়ে দিয়েছে বাংলা। ম্যাচের ফলাফল ১-০। ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেছেন বাংলার দিলীপ ওরাও। এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে বাংলা ফুটবল দল। কোচ রঞ্জন ভট্টাচার্যের নির্দেশে দুই প্রান্ত দিয়ে ক্রমাগত আক্রমণ চালাতে থাকে বাংলা।

আরও পড়ুন: আরবের টি-২০ লিগের জন্য দল কিনতে চলেছে রিলায়েন্স, জানিয়েছেন নীতা আম্বানি

কিন্তু একাধিক সুযোগ নষ্টের জন্য বাংলা দল একটির বেশি গোল করতে পারেনি। ম্যাচের প্রথমার্ধে পেনাল্টি পেয়েছিল বাংলা। কিন্তু মহিতোষ পেনাল্টি মিস করেন। এরপরেও প্রথমার্ধে আরো দু’তিনটি সুবর্ণ সুযোগ পেলেও সুব্রত মুর্মু, দিলীপ ওঁরাও রা কাজে লাগাতে পারেনি। ম্যাচের ৪২ মিনিটে বাঁ দিক থেকে ভেসে আসা ক্রশ থেকে গোল করেন দিলীপ ওঁরাও।

আরও পড়ুন: সংযুক্ত আরব আমিরাতের সেরা ক্রীড়া পুরস্কার পেতে চলেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

এদের বাংলা দলের মাঝমাঠে বারবার চোখে পরলো বাসুদেব মান্ডিকে। উঠেনেমে খুব পরিশ্রম করে খেললেন। অন্যদিকে সিকিম দুটো একবার বিক্ষিপ্ত আক্রমণ ছাড়া সেভাবে বাংলা রক্ষণভাগে হানা দিতে পারেননি। বাংলার অধিনায়ক মনোতোষ চাকলাদার এর নেতৃত্বে বাংলার রক্ষন ছিল জমজমাট। তবে বার বার দুই ডিফেন্ডার মনোতোষ ও সজল সমান্তরাল লাইনে চলে আসছিলেন যেখান থেকে বিপদ হতে পারত। তবে প্রাথমিক পর্বে বাংলা স্ট্রাইকাররা যেভাবে গোল মিস করছেন তাতে একটা চিন্তা থেকেই যাচ্ছে। পরবর্তী পর্বের আগে বাংলার কোচ রঞ্জন চৌধুরী তার স্ট্রাইকারদের এই ভুলগুলো শুধরে দিলে আগামী ম্যাচগুলোতে বাংলার । আখেরে লাভ হবে । এদিন প্রথম একাদশে ছিলেন না কলকাতা লীগে নজর করা সুকুরাম সরদার। অন্যদিকে সিকিমের বীর বাহাদুর প্রধান, মিলন ছেত্রীরা গোল শোধ করতে ব্যর্থ । সিকিম গোলরক্ষক বিপিন ভট্টরাজ সারা ম্যাচেই ব্যস্ত ছিলেন বাংলার আক্রমণ সামলাতে। বাংলা গোলরক্ষক প্রিয়ন্ত সিংকে সেভাবে কোনো বড় পরীক্ষার মুখে পড়তে হয়নি।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *