Latest News

Popular Posts

অলিম্পিকে ইতিহাস গড়ে দেশে ফিরলেন ফেন্সার ভবানী দেবী

অলিম্পিকে ইতিহাস গড়ে দেশে ফিরলেন ফেন্সার ভবানী দেবী

Mysepik Webdesk: টোকিও অলিম্পিকে শুরুটা ভালোই করেছিলেন সি এ ভবানী দেবী। ফেন্সিংয়ে ভারতের ভবানী দেবী তিউনিসিয়ার নাজিয়া বেন আজিজিকে হারিয়ে দিয়ে ইতিহাস গড়েছিলেন। তবে দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে ফ্রান্সের মনন ব্রুনেটের কাছে হার স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছিলেন ভবানী দেবী। সেই খেলার ফলাফল ছিল ৭-১৫। যদিও ভবানী দেবী হেরে গেলেও ভারতীয় অলিম্পিক ইতিহাসে নতুন নজির রেখে গিয়েছিলেন ভবানী দেবী। প্রথমত, তিনি প্রথম ভারতীয় অলিম্পিয়ান হিসাবে ফেন্সিং ইভেন্টে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। দ্বিতীয়ত, ভবনী দেবীই প্রথম ফেন্সার হিসেবে দেশের হয়ে অলিম্পিকে জয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন। তিনি ভারতীয় ফেন্সিংয়ে আগামী প্রজন্মের কাছে অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন।

আরও পড়ুন: অলিম্পিকে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছল ভারতীয় মহিলা হকি দল

এহেন ভবানী দেবী আজ দেশে ফিরলেন। ফেসবুক এবং টুইটারে টোকিও এয়ারপোর্টের ছবি পোস্ট করে তিনি শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এখনও মেডেলের লড়াইয়ে থাকা অন্যান্য ভারতীয় প্রতিযোগীকে। টুইটারে তিনি লিখেছেন, “সুন্দর অলিম্পিক যাত্রা শেষ হচ্ছে। আমার মাতৃভূমিতে আমি ফিরে আসছি। এটি ছিল আমার জীবনের অন্যতম সেরা অভিজ্ঞতা। আমি সব সময় এই সুন্দর জার্নিকে লালন করব। প্রতিযোগিতার সময় আপনাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত সমস্ত প্রার্থনা এবং শুভেচ্ছায় অভিভূত আমি।” উল্লেখ্য যে, ২৭ বছর বয়সি এই তলোয়ারবাজ হাঙ্গেরি বিশ্বকাপেও জায়গা করে নিয়েছিল। বর্তমানে বিশ্ব র‍্যাঙ্কিংয়ে ৪২ নম্বরে থাকা ভবানী বুধাপেস্টে সাবের ফেন্সিং বিশ্বকাপের টিম ইভেন্টে দক্ষিণ কোরিয়ার কোয়ার্টার ফাইনালে হাঙ্গেরিকে পরাজিত করে অলিম্পিকে সুযোগ পেয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: পদক জয়ের আশা বাড়িয়ে অলিম্পিক ডিস্কাসে ফাইনালে কমলপ্রীত কৌর

ভবানী ২০০৯ কমনওয়েলথ চ্যাম্পিয়নশিপে তৃতীয় স্থান অর্জন করে প্রথম আন্তর্জাতিক পদক জিতেছিলেন। তিনি ২০১৪ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে সিঙ্গেল ইভেন্টে রুপোর পদক জিতেছিলেন, পরের বছর তিনি একই চ্যাম্পিয়নশিপের একই ইভেন্টে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন। ভবানী ২০১৭ সালে মহিলা বিশ্বকাপে আন্তর্জাতিক স্বর্ণপদক জেতা প্রথম ভারতীয় ফেন্সার। ২০১৮ সালে, তিনি অস্ট্রেলিয়ায় সিনিয়র কমনওয়েলথ ফেন্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণপদক জিতেছিলেন। প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য, ১৮৯৬ এথেন্স অলিম্পিকে ফেন্সিং অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল। তখন থেকেই এটি স্পোর্টস ইভেন্টের একটি অংশ। মহিলা ফেন্সিং ১৯২৪ সালে প্যারিস অলিম্পিকে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *