সবলা-কন্যাশ্রী প্রকল্প সমন্বয় প্রোগ্রাম-এর বিশেষ উদ্যোগ

বজবজ, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মহিলা ও শিশু উন্নয়ন এবং সমাজ কল্যাণ দপ্তরের অন্তর্গত সবলা-কন্যাশ্রী প্রকল্প সমন্বয় প্রোগ্রাম-এ ১১-১৮ বছরের কিশোরীদের সার্বিক ক্ষমতায়নের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি প্রতিটি জেলায় সুসংহত শিশু বিকাশ প্রকল্পের মাধ্যমে শুরু হয়েছে। স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘বিতান’ একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বজবজ-১, বজবজ-২, মহেশতলা (আরবান) আইসিডিএস-এর সঙ্গে এই প্রোগ্রাম বাস্তবায়নের কাজে যুক্ত।

আরও পড়ুন: নারকেলডাঙার ছাগলপট্টি বস্তিতে ভয়াবহ আগুন, পুড়ে ছাই অন্তত ৫০টি ঘর

করোনা আবহে কিশোরীদের ঋতুকালীন পরিছন্নতা ও তাদের স্বাস্থ্যবিধির উপর বেশ প্রভাব পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে কিশোরীরা পুরনো অভ্যাসে ফিরতে বাধ্য হচ্ছে। আইসিডিএস, স্বাস্থ্য দপ্তর ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সমন্বয়ে বজবজ-১, বজবজ-২, মহেশতলা পৌরসভার আইসিডিএস প্রকল্পের অন্তর্গত দুস্থ কিশোরীদের নিয়ে ঋতুকালীন পরিচ্ছন্নতা বিষয়ে সচেতনতামূলক শিবিরের আয়োজন করা হয়েছিল। ৭৭৫ জন কিশোরীদের (যাদের মধ্যে ২১১ জন স্কুলছুট কিশোরী) মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতা শিবিরের পাশাপাশি বিনামূল্যে ১৫৫০টি স্যানিটারি ন‍্যাপকিন প্যাকেট বিতরণ ক‍রা হয়েছে। বিতানের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে, বজবজ ১ ও ২ ব্লকের অন্বেষা লেডি কাউন্সিলরদের, আইসিডিএস সুপারভাইজার ও অঙ্গনওয়াড়ি দিদিদের, যাঁদের অক্লান্ত পরিশ্রম ছাড়া এই স্বাস্থ্য সচেতনতা শিবির কোনওভাবে সম্ভব হত না। বিশেষ ধন্যবাদ জানানো হয়েছে ‘Child Help Foundation India’-কে, এই ন‍্যাপকিন পেতে সাহায্য করার জন্য। সর্বোপরি, বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানানো হয়েছে বজবজ-১, বজবজ-২ ও মহেশতলা (আরবান) আইসিডিএস-এর প্রকল্প আধিকারিকদের যাদের সঠিক পরিকল্পনা ও সহযোগিতা ছাড়া এত সংখ্যক কিশোরীদের কাছে পৌঁছনো সম্ভব হত না।

আরও পড়ুন: আজ সাপ্তাহিক লকডাউনে রাজ্যে বন্ধ ট্রেন চলাচল, যাত্রীদের স্টেশনে আসতে নিষেধ রেলের

প্রান্তিক জনগোষ্ঠী এলাকায় দুস্থ ও স্কুলছুট কিশোরীরা জানিয়েছে যে, এই পরিস্থিতিতে ন‍্যাপকিনের অভ্যাস পরিত‍্যাগ করতে বাধ্য হয়েছিল। এই সচেতনতা শিবির থেকে তারা ঋতুকালীন স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত অনেক কিছু জানতে পেরেছে। ন‍্যাপকিন পেয়ে তারা ভীষণ খুশি। তারা সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছে তাদের পাশে থাকার জন্য।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *