বিজেপিতে দলীয় ভাঙ্গন অব্যহত, খোদ শুভেন্দুকে মারাত্মক প্রশ্ন করলেন বিজেপি কর্মী

Mysepik Webdesk: তৃতীয়বারের জন্য বাংলায় তৃণমূল ফেরার পর বিজেপি শিবিরে ভাঙন অব্যহত। নির্বাচনের আগে তৃণমূল ছেড়ে যে সব নেতা-মন্ত্রীরা বিজেপি শিবিরে পা রেখেছিলেন, তাঁরাই এখন তৃণমূলে ফিরতে মরিয়া। এর পাশাপাশি এবার বিজেপি কর্মীদের মধ্যেও ক্ষোভের ছবিটা স্পষ্টই হচ্ছে। দিবাকর দেবনাথ নামে এক বিজেপি কর্মীর অভিযোগ, তিনি অনেকবার চেষ্টা করেও শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি। শুধু তাই নয়, তাঁর ফোনও বার বার কেটে দিয়েছেন শুভেন্দু। হোয়াটসঅ্যাপেও উত্তর দেননি।

আরও পড়ুন: শ্বাসরোধ করা হয়েছে বাংলায় গণতন্ত্রের­: বিজেপি বিধায়কদের সঙ্গে চা-চক্রে সরব রাজ্যপাল

মঙ্গলবার বিজেপির ওই কর্মী শুভেন্দু অধিকারীর উদ্দেশ্যে টুইট করে লেখেন, “আমি দুই পা বাড়িয়ে রেখেছিলাম হয়তো আমাদের মতো কর্মীদের দরকার নেই তাই বার বার ফোন কেটে দিয়েছেন। আপনারা তৃণমূলের থেকে আসা নেতা দের খুশি করতে ব্যস্ত তাই আমাদের কথা শোনার সময় নেই তাহলে আমরা কেনো আপনাদের নেতা মনে করে জীবন হাতে নিয়ে লড়াই করবো?” দিবাকরের ওই টুইটটির স্ক্রিনশট শেয়ার করলেন বিজেপি নেতা তথাগত রায়। ইতিমধ্যেই এই ঘটনা রাজনৈতিক মহলে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। প্রসঙ্গত, বিজেপি নেতা তথাগত রায়ের চোখের বালি রাজ্যের বেশ কয়েকজন বিজেপি নেতা। তথাগতের দাবি, এই নেতারাই আসলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভাবমর্তি নষ্ট করছেন।

আরও পড়ুন: রাজীবকে তৃণমূলে ফেরানোয় আপত্তি, বিক্ষোভ-মিছিল ডোমজুড়ে

তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও বিজেপি নেতৃত্বদের ওপর কর্মীদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ সামনে এসেছে। হুগলি ও আসানসোলে দিলীপ ঘোষের সভায় চরম বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়। দলীয় কর্মীদের একাংশের দাবি, তাঁদের ভেতরে ঢুকতে না দিয়ে মুখের সামনে দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। জনৈক বিজেপি কর্মীকে দিলীপ ঘোষের সামনে বলতে শোনা যায়, ‘মার খেয়েছি আমরা, কেন ঢুকতে দেওয়া হবে না বৈঠকে?’ উত্তরে দিলীপ ঘোষ জানিয়েছিলেন, ‘যাঁরা আমন্ত্রিত, শুধু তাঁরাই থাকবেন’। যদিও এই ঘটনা নিয়ে পরে বিস্তর জলঘোলা হয়েছিল। দলীয় কর্মীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন রাজ্যের একাধিক বিজেপি নেতা।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *