কলাবাগানে জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য, ‘আমাদের কর্মী’ দাবিতে বিজেপির পক্ষ থেকে আগামীকাল ১২ ঘণ্টা বনধের ডাক শান্তিপুরে

Death

Mysepik Webdesk: কলাবাগানে জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য। বৃহস্পতিবার সকাল ছ’টা নাগাদ হরিপুর পঞ্চায়েতের মেথিরডাঙ্গা এলাকার বড় ডাঙ্গাগ্রামের একটি চাষের কলাবাগান থেকে দুজন যুবকের রক্তাক্ত মৃতদেহ দেখে ওই এলাকার কৃষকরা। থানায় খবর দেওয়ার পর পুলিশ এসে ওই মৃতদেহ দুটি উদ্ধার করে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই দুই যুবকের বাড়ি প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে নৃসিংহপুর হাউসাইট কলোনি এবং বর্মন পাড়ায়। ওই দুই যুবকের নাম দীপঙ্কর বিশ্বাস এবং প্রতাপ বর্মন। দুজনেরই বয়স কুড়ি থেকে পঁচিশ বছরের মধ্যে, জানা যায় ওই দুই যুবক পেশায় ধানকল শ্রমিক।

আরও পড়ুন: মিলছেনা বার্ধক্য ও বিধবা ভাতা, ক্ষুব্ধ প্রবীণ নাগরিকরা

পরিবার সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকেলে দীপঙ্করের মোটর বাইকে চেপে দীপঙ্কর ও প্রতাপ বেরিয়েছিল। রাতে তাঁরা কেউ বাড়ি ফেরেননি। একাধিকবার ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও, তাদের দু-জনের ফোন সুইচ অফ ছিল। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধারকৃত মোবাইল খতিয়ে দেখছে শান্তিপুর থানার পুলিশ। রাস্তার পাশে মোটর বাইক রেখে ওই দুই যুবক কলাবাগানের মধ্যে কি করছিল তা জানা যায়নি, তবে তাদেরকে কলাবাগানের মধ্যে দিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় টেনে নিয়ে যাওয়ার রক্তের দাগ লক্ষ্য করা যায় আজ সকালে। ঘটনাস্থলে সার্কেল ইন্সপেক্টর গৌরীপ্রসন্ন বন্ধু উপস্থিত হন। ওই কলাবাগানের সামনে তাঁত কারখানা তৈরীর উদ্দেশ্যে সদ্য নির্মিত একটি তাঁত কারখানার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তবে এখনো পর্যন্ত এ বিষয়ে কিছু তথ্য পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: শ্যামা মায়ের মন্দিরে পুজো দিয়ে প্রচারে নামলেন করিমপুর বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী সমরেন্দ্র নাথ ঘোষ

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে দলীয় কর্মীদের কাছ থেকে সংসদ জগন্নাথ সরকার জানতে পারেন যে ওই দুই মৃত যুবকের মধ্যে প্রতাপ বর্মন বিজেপি দলের সক্রিয় কর্মী। তার পরিবারের পক্ষ থেকেও সে কথাই জানা যায়, তবে অপরজনও তাদের সমর্থক বলে দাবি করেন সংসদ জগন্নাথ সরকার। কিন্তু দীপঙ্কর কোন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন না বলে তার পরিবারের দাবি। এই ঘটনার প্রতিবাদে আগামীকাল শান্তিপুরে ১২ ঘণ্টার বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি। যদিও কীভাবে দুই বন্ধুর মৃত্যু হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *