অলিম্পিকের আগে জোর ধাক্কা ভারতীয় টেনিস শিবিরে, যোগ্যতা অর্জনে ব্যর্থ বোপান্না এবং দিভিজ জুটি

Mysepik Webdesk: অলিম্পিকে ভারতীয় টেনিস মহলের জন্য খারাপ খবর। অলিম্পিকে পুরুষদের ডাবলসে যোগ্যতা অর্জন করতে ব্যর্থ হয়েছেন রোহন বোপান্না এবং দিভিজ শরণ জুটি। ১৯৯২ সাল থেকে ভারত অলিম্পিকের টেনিস ডাবলসে টানা প্রতিনিধিত্ব করে আসছে। আসন্ন টোকিও অলিম্পিকে ভারতীয় পুরুষ ডাবলস দল থাকবে না। এখন যদি কোনও অন্য ডাবলস জুটি তাঁদের নাম প্রত্যাহার করে নেন, একমাত্র তখনই অলিম্পিকে খেলার সুযোগ মিলতে পারে এই ভারতীয় জুটির। উল্লেখ্য যে, বোপান্না-শরণ পুরুষদের ডাবলসে যোগ্যতা অর্জন করতে না পারার জন্য টোকিও অলিম্পিকে কেবল মহিলা ডাবলস জুটিকে ভারতকে প্রতিনিধিত্ব করতে দেখা যাবে। সানিয়া মির্জা এবং অঙ্কিতা রায়না অংশগ্রহণ করতে চলেছেন টোকিও অলিম্পিকে।

আরও পড়ুন: শ্যুটিং বিশ্বকাপে সোনা জিতে অলিম্পিকের প্রস্তুতি ভালোই সারলেন রাহি স্বর্ণবাট

অল ইন্ডিয়া টেনিস অ্যাসোসিয়েশন (এআইটিএ)-এর একটি সূত্র পিটিআইকে জানিয়েছে, “এআইটিএফ (আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন) নিশ্চিত করেছে যে, বোপান্না এবং দিভিজ দল হিসাবে পুরুষদের ডাবলসে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। তবে কোনও দল যদি নাম প্রত্যাহার করে নেয় ১৬ জুলাইয়ের মধ্যে, তবে অবস্থার পরিবর্তন হতে পারে।” যদিও বিশেষজ্ঞদের মতে, কোনও জুটি নাম প্রত্যাহার করে নিলেও ভারতীয় জুটির অলিম্পেকে অংসজ নেওয়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ সেক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে সিঙ্গল জুটিকে। এরপর সিঙ্গল-ডাবলসের সমন্বয় এবং তারপরে ভাবা হবে ডাবলস-ডাবলস কম্বিনেশনের কথা। অনেক শীর্ষ খেলোয়াড় সরে দাঁড়ালেও এবং র‍্যাঙ্কিংয়ের নিচে থাকা খেলোয়াড়রা, যাঁরা নিয়মিত ডাবলসে খেলেছেন, তাঁরাও অলিম্পিকের দু’টি ইভেন্টে খেলার সুযোগ হাতছাড়া করতে চাইবেন না।

আরও পড়ুন: ইউরোয় এবার বিদায় জার্মানি ও সুইডেনের

এআইটিএ-র সাধারণ সম্পাদক অনিল ধুপা প্রসঙ্গত জানিয়েছেন, সম্পূর্ণ তালিকা হাতে পাওয়ার পরে তিনি এই বিষয়ে স্পষ্টভাবে বলতে পারবেন। সূত্রের খবর, বোপান্না এবং দিভিজ জুটির যৌথ র‍্যাঙ্কিং ছিল ৩৮ + ৭৫ = ১১৩, যা অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জনের পক্ষে পর্যাপ্ত ছিল না। এদিকে অলিম্পিকের নিয়ম হল, সিঙ্গলস বা ডাবলসে যোগ্যতা অর্জনকারী কোনও টেনিস খেলোয়াড় মিক্সড ডাবলসে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। তবে বোপান্না-শরণ জুটি অলিম্পিকে যোগ্যতা অর্জন করতে না পারার জন্য সানিয়া মির্জাদের সঙ্গে মিক্সড ডাবলসেও প্রতিনিধিত্ব করতে পারবেন না কেউ।

উল্লেখ্য যে, ১৯৯২-এর বার্সেলোনা অলিম্পিকে কলকাতার বেক বাগানে জন্মানো কিংবদন্তি টেনিস খেলোয়াড় লিয়েন্ডার পেজের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন রমেশ কৃষ্ণান। তাছাড়া অলিম্পিকে লিয়েন্ডার পেজ এবং মহেশ ভূপতির জুটি বেঁধে খেলার কথা সর্বজনবিদিত। রিও অলিম্পিকে রোহন বোপান্নার সঙ্গে জুটি বাঁধতে দেখা গিয়েছিল লিয়েন্ডার পেজকে। বিগত অলিম্পিক আসরে রোহন বোপান্নার সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন সানিয়া মির্জা। যদিও কোনও আশানুরূপ ফল করতে পারেননি এই জুটি। ব্রোঞ্জ পদকের প্লে-অফ ম্যাচে এই ভারতীয় জুটি চেক রিপাবলিক জুটির কাছে হার স্বীকার করেছিলেন। যদিও এই অলিম্পিকের অনেক আগে সানিয়া খেলতে অস্বীকার করেছিলেন লিয়েন্ডার পেজের সঙ্গে। এরপর অবশ্য নিজের মহান হৃদয়ের পরিচয় দিয়ে ‘হায়দরাবাদী কন্যা’র বিপক্ষে কোনও রকম মন্তব্য না করে লিয়েন্ডার বলেছিলেন যে, “সানিয়া মির্জা ভারতীয় টেনিসের রোল মডেল।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *