করোনাকালে ক্রিকেটারদের অনুপ্রেরণা হতে পারেন ব্র্যাডম্যান, ডনের জন্মদিনে বললেন আধুনিক ক্রিকেটের ‘ডন’

Sachin Don

Mysepik Webdesk: করোনা ভাইরাসজনিত মহামারির কারণে দীর্ঘ বিরতির ফলে অনেক খেলোয়াড় ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত রয়েছে। তবে চ্যাম্পিয়ন ক্রিকেটার শচীন তেন্ডুলকার সেসব ক্রিকেটারকে স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের কাছ থেকে অনুপ্রেরণা নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। ১৯৩৯ থেকে ১৯৪৪ সালের মধ্যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে ব্র্যাডম্যান অনেক বছর ক্রিকেট খেলতে পারেননি। তবে এই ‘অতিদীর্ঘ’ সময়ে ক্রিকেট না খেলতে পারলেও দীর্ঘ বিরতি তাঁর পারফরম্যান্সকে প্রভাবিত করতে পারেনি। তার উদাহরণ তাঁর ঈর্ষণীয় কেরিয়ার। তিনি ৫২টি টেস্টে ৯৯.৯ গড়ে রান করেছেন। জীবনের শেষ ম্যাচের প্রথম ইনিংসে তিনি করেছিলেন ৯৪। দ্বিতীয় ইনিংসে আর মাত্র ৬ রান করতে পারলে তাঁর গড় ১০০ হত। কিন্তু তিনি রানের খাতা খুলতে পারেননি।

আরও পড়ুন: বাবা হতে চলেছেন ভারত অধিনায়ক, অভিনন্দন শচীনের

ব্র্যাডম্যানকে তাঁর ১১২তম জন্মবার্ষিকীতে স্মরণ করে তেন্ডুলকার টুইটারে লেখেন, “স্যার ডন ব্র্যাডম্যান দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে বহু বছর ক্রিকেট থেকে দূরে ছিলেন। তবে তাঁর ব্যাটিং গড় এখনও সর্বোচ্চ।” তিনি আরও বলেন, ”দীর্ঘ বিরতি ও অনিশ্চয়তার কারণে খেলোয়াড়রা আজ উদ্বিগ্ন এবং এমন পরিস্থিতিতে ব্র্যাডম্যান তাঁদের অনুপ্রেরণার উৎস হতে পারেন। শুভ জন্মদিন স্যার ডন।”

আরও পড়ুন: পরের বছর ‘খেলো ইন্ডিয়া’ চলাকালীন ব্রিকস গেমসের পরিকল্পনা করেছে ভারত

কিছুকাল আগে পিটিআইয়ের সঙ্গে কথোপকথনে তিনি ‘৯০-এর দশকের এই বিরতির কথাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ”১৯৯৪ সালের মার্চ থেকে অক্টোবর ১৯৯৫ পর্যন্ত আমরা প্রায় ১৮ মাস খুব কম টেস্ট খেলেছি। সেই সময়, তিন থেকে চার মাস বিরতি ছিল নিতান্তই সাধারণ ব্যাপার। গ্রীষ্মে শ্রীলঙ্কা সফরেও বহু ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে গিয়েছিল।”

আজ থেকে ১১২ বছর আগে আজকের দিনে অর্থাৎ ২৭ আগস্ট নিউ সাউথ ওয়েলসের কুটামুন্ড্রায় জন্মেছিলেন স্যার ডন ব্র্যাডম্যান। ১৯৯৮ সালে শচীন দেখা করেছিলেন ব্র্যাডম্যানের সঙ্গে। আর এদিন ক্রিকেটের এই ক্ষণজন্মার জন্মদিনে এভাবেই তাঁকে সম্মান জানালেন আধুনিক ক্রিকেটের ‘ডন’।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *