Breaking News: ১৫ নভেম্বর থেকে খুলবে স্কুল-কলেজ, ঘোষণা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

Mysepik Webdesk: রাজ্যে স্কুল খোলার বিষয়ে বড়োসড়ো ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার শিলিগুড়ির প্রশাসনিক বৈঠক থেকে স্কুল-কলেজ খোলার দিনক্ষণ জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে রাজ্যের স্কুল-কলেজগুলি খুলে দেওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যে স্বাভাবিকভাবেই মনে করা হচ্ছে কোভিড পরিস্থিতির মধ্যে স্কুল-কলেজ খুলতে গেলে ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলে কোভিডবিধি মেনে চলতে হবে। কিন্তু ঠিক কী কী নিয়ম মেনে পড়ুয়ারা স্কুলে আসতে পারবে, তা তিনি এখনও স্পষ্ট করে কিছু জানাননি। শুধুমাত্র নবম শ্রেণী থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীদের জন্য স্কুল খোলার কথা জানালেন তিনি।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশে ইসকন মন্দির ও দুর্গাপুজোয় হামলার প্রতিবাদ বহরমপুরে

প্রসঙ্গত, আগেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, দুর্গাপুজোর পর স্কুল খোলা হতে পারে। ১৭ সেপ্টেম্বর রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়েছিলেন, রাজ্য স্কুল খুলতে চায়, তবে করোনা পরিস্থিতির ওপর বিচার করে। মুখ্যমন্ত্রী যেমন নির্দেশ দেবেন, সেই নির্দেশ অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। তিনি বলেছিলেন, “রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিকাঠামো সম্পর্কে সব থেকে ভালো জানেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর নির্দেশ অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। স্কুল বন্ধ রাখা কিংবা খোলা সবটাই নির্ভর করছে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির ওপর। সেই কারণেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে সার্বিকভাবে আলোচনা করার পরেই তাঁর নির্দেশ মতো প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।”

আরও পড়ুন: ফের বাড়ছে কোভিড সংক্রমণ, জেলায় জেলায় নতুন করে কনটেনমেন্ট জোন ঘোষণা

চলতি বছরের অগাস্ট মাসে নবান্নে গ্লোবাল অ্যাডভাইসরি কমিটির বৈঠক চলাকালীন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, পুজোর পর একদিন অন্তর একদিন রাজ্যের স্কুলগুলি খোলার ব্যবস্থা করা হবে। একাধিক কর্মসূচি নিয়ে ২৪ অক্টোবর, রবিবার উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড নিয়ে একপ্রস্থ আলোচনা করার পরই মুখ্যমন্ত্রী মুখ্যসচিবকে স্কুল খোলার নির্দেশ দেন। এদিন মুখ্যসচিবকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “১৫ তারিখ থেকে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়া হোক। তার আগে দু’সপ্তাহের মধ্যেই স্যানিটাইজেশনের কাজ শেষ করতে হবে।” প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গের কলেজগুলিতে করোনা পর্ব থেকে অফলাইন ক্লাস বন্ধ হয়ে গেলেও অনলাইনের মাধ্যমে ক্লাস এবং পরীক্ষা নেওয়া চলছিল। এবার আগামী পনেরো নভেম্বর থেকে প্রায় দেড় বছর পরে কলেজগুলিতে অফলাইন অর্থাৎ সরাসরি ক্লাসরুম টিচিংয়ের সুযোগ পেতে চলছে পড়ুয়ারা।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *