দেবতার জন্ম

পৌষালী চক্রবর্তী তখন একটি গ্রাম পঞ্চায়েতের পরিকল্পনা দেখতে দেখতে ক্লান্ত হয়ে উঠছিলাম। অর্থ কমিশনের বাজেটের নিরিখে সব গ্রাম পঞ্চায়েতের থেকে প্ল্যান তৈরি করে ব্লকে পাঠিয়েছে; সেগুলি চেক করে নিয়ে আমাদের অনুমোদনের জন্য জেলায় পাঠাতে হবে। সিংহভাগই গতানুগতিক কাজের ক্ষেত্র ধরেছে। হয়তো মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাপনের ক্ষেত্রে এগুলোই বেশি কাজে লাগে। চোখ বোলাতে বোলাতে হঠাৎই নজরে পড়ল একটি পঞ্চায়েতের স্কিমের নাম ‘আর্কিওলজি

Read more

উৎসবের মরশুমে শুশুনিয়া পাহাড়

ড. রুচিরা চন্দ আপনি যদি কলকাতাবাসী হন, আর উৎসবের মরশুমে কলকাতা ছেড়ে অন্যত্র চলে যাওয়ার মধ্যে কোনও মাহাত্ম্য খুঁজে না পান; তবে এই লেখা বিশেষভাবে আপনার জন্য। আমরা যারা, পুজোর আনন্দ, উত্সবের মেজাজ ইত্যাদি একেবারেই মিস করতে চাই না; তারা কিন্তু আবার কখনও কখনও গড্ডালিকা প্রবাহে না ভেসে একটু অন্যরকম করেও দেখে নিতে চাই সবকিছু। আর এই নতুন আনন্দের পরিমাপক

Read more

উত্তরবঙ্গের বনদুর্গা

নিবেদিতা ঘোষ রায় এখানে প্রতিমা জলে পড়ার পরের সেই শিরশিরে বাতাসটা বইতে শুরু করেছে। দু’দিন আগেও কাঁচপোকা প্রজাপতি ঘন হয়ে ওড়াউড়ি করত। পাইনের গুঁড়িতে কটকটে রোদ গাছটাকে যেন চকচকে ফেস পাউডার মাখিয়ে দিয়ে যেত। আজ দেখো! ঠান্ডা রোদ অলস হয়ে শুয়ে আছে দোপাটি ঝোপে। কি বিবাগী! উদার হাওয়া বইছে। শঙ্করের তৃণভূমির দক্ষিণ-পশ্চিমে কাশফুলের গোছা দেখা যাচ্ছে অঢেল। শরতের উগ্র চড়চড়ে

Read more

উৎসবের ঋতু, ঋতুর উৎসব

সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায় ‘আফ্রিকার রাজা’ সিংহের মুখের মধ্যে ধাতব গণেশের মূর্তি চুইংগাম দিয়ে আটকে রেখেছিল রুকু ওরফে ক্যাপ্টেন স্পার্ক। আর মগললাল মেঘরাজের সেই গণেশ মূর্তির লোভের শিকার হয়ে খুন হয়ে গেলেন প্রতিমা শিল্পী পালমশাই। এমনই দুর্গোৎসবের দেখা মিলেছিল সত্যজিৎ রায়ের ছবি জয় বাবা ফেলুনাথ-এ। যে বছর মারা গেলেন সত্যজিৎ রায়, সে বছরই, ১৯৯২ সালে আত্মপ্রকাশ ঘটল এক তরুণ চলচ্চিত্র পরিচালকের। যে

Read more

পাকিস্তান থেকে শরণার্থী হয়ে আসা বান্নু সমাজের হাতে শুরু হওয়া রাবণ দহন আজ রাঁচির ঐতিহ্য

ইন্দ্রজিৎ মেঘ সালটা ১৯৪৮। ৭৩ বছর আগে সালে রাঁচিতে শুরু হয়েছিল রাবণ দহন। আয়োজকরা তখন কল্পনাও করতে পারেননি যে, তাঁদের এই ছোট্ট অনুষ্ঠান একদিন গোটা রাঁচির মানুষেরই উৎসব হয়ে উঠবে। পশ্চিম পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিম সীমান্তের একটি আদিবাসী এলাকা বান্নু শহর থেকে শরণার্থী হয়ে রাঁচিতে এসেছিল ১০-১২টি পরিবার। সেই পরিবার মিলে তাদের সবচেয়ে বড় উৎসব দশেরা উদ্যাপন করেছিল রাবণ দহনের মাধ্যমে। আরও

Read more

অতিমারির ভয়ংকরতার মধ্যেও পুজোর আনন্দ নতুন করে বেঁচে থাকার খোরাক

পারমিতা ভট্টাচার্য ছোটবেলায় প্রতি বছর ঠাকুরের মূর্তির বিসর্জনের দিন মনখারাপ হয়ে যেত। এই যাঃ, দুর্গাপুজো ফুরিয়ে গেল যে! ‘আসছে বছর আবার হবে’— এই পাখি-পড়া বাক্যটি দিয়ে আজও মনকে বোঝাই। আর বোঝাতে বোঝাতেই এসে পড়ে মহালয়া। খুব ছেলেমানুষ বয়সের একগুচ্ছ ভালো লাগার টান এক এমনি ভালো লাগায় ভরিয়ে তোলে মন। সেই যে ফিলিপ্সের রেডিয়োতে আগের দিন রাতেই স্টেশন ধরে রাখতেন বাবা,

Read more
1 2 3 25