স্পট ফিক্সিংয়ের মামলায় স্বস্তি অঙ্কিত চবনের, আজীবন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার বিসিসিআইয়ের

BCCI

Mysepik Webdesk: আইপিএল স্পট ফিক্সিংয়ের মামলায় ক্রিকেটার অঙ্কিত চবনকে বড় স্বস্তি দিয়েছে বিসিসিআই। ২০১৩ সালে আইপিএল চলাকালীন স্পট ফিক্সিংয়ের অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার কারণে আঙ্কিত চবন আজীবন নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েন। তবে বিসিসিআই এখন এই নিষেধাজ্ঞার অবসান ঘটিয়েছে। বিসিসিআই অঙ্কিত চবনকে ওপর থেকে আজীবন নিষেধাজ্ঞা কমিয়ে সাত বছর করেছে। আদালতের আদেশের পরে বিসিসিআই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে। অঙ্কিত চবনের ওপর চাপানো সাত বছরের নিষেধাজ্ঞার অবসান গত বছরের সেপ্টেম্বরে শেষ হয়েছিল।

আরও পড়ুন: অলিম্পিকে চাইনিজ ও কোরিয়ান কৌশল নিয়ে হেঁটে পদক জিততে মরিয়া কেটি ইরফান

চবন জানিয়েছেন যে, বিসিসিআইয়ের এই সিদ্ধান্ত তাঁর জন্য বড় স্বস্তি। তিনি বলেন, “আমার থেকে একটা বড় বোঝা সরে গেল। মাঠে নামার জন্য তর সইছে না। আমি বিসিসিআই এবং মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনকে ধন্যবাদ জানাই।” চন্দন জানিয়েছেন, মুম্বই দলে ফিরতে তিনি যথাসাধ্য চেষ্টা করবেন। এই স্পিন বোলারের কথায়, “নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পরে আমি আবার খেলব। মুম্বই দলে ফেরা হোক বা না হোক, তবে আমি ক্রিকেট চালিয়ে যাব। আমার কাজ ক্রিকেট খেলা এবং আমি ফিরে আসার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব।”

আরও পড়ুন: ঠান্ডা পানীয়ের বোতল সরিয়ে রাখলেন রোনাল্ডো, একদিনে কোকাকোলার ক্ষতি ৩৪ হাজার কোটি টাকা

অঙ্কিত চবনকে শ্রীসন্থ ও অজিত চণ্ডিলার সঙ্গে স্পট ফিক্সিংয়ের জন্য দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। এই তিন খেলোয়াড় ২০১৩ সালে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে আইপিএল খেলছিলেন। বিসিসিআই তিন খেলোয়াড়ের উপর আজীবন নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। তবে সুপ্রিম কোর্ট যাবজ্জীবন নিষেধাজ্ঞার সাজা কমিয়ে সাত বছর করে দেয়। শ্রীসন্থ তাঁর সাত বছরের নিষেধাজ্ঞার অবসান শেষে গত বছরই ক্রিকেট মাঠে ফিরেছেন। উল্লেখ্য যে, বিধানসভায় নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য আবেদন করেছিলেন চবন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *