ফের আগ্রাসী চিন: লাদাখ সীমান্তের কাছে মোতায়েন লালফৌজের অদৃশ্য ‘H-20’ বোমারু বিমান

একবার ভারতের কাছে ধাক্কা খেয়েও শিক্ষা হয়নি চিনের। ফের অগ্রাসন নীতি নিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডের দিকে এগনোর চেষ্টা করছে চিন সেনারা। ইতিমধ্যেই সাউথ ব্লকের কাছে চিন সেনাবাহিনীর অত্যাধুনিক স্টেলথ যুদ্ধবিমানের পরীক্ষামূলক উড়ান জারি রেখেছে লালসেনা। জানা গিয়েছে, পূর্ব লাদাখের কাছে শিনজিয়াং প্রদেশের হোটান বিমানঘাঁটি থেকে H-20 যুদ্ধবিমানগুলোর আকাশে পাড়ি দিচ্ছে। এই পরীক্ষামূলক উড়ান চলবে জুনের ২২ তারিখ পর্যন্ত। পরীক্ষার শেষে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই সেগুলিকে চিনের বায়ুসেনার অন্তর্ভুক্তিকরণ করা হবে।

আরও পড়ুন: উপহার হিসেবে পাকিস্তানের পাঠানো আম নিচ্ছে না কোনও দেশই, বিফলে কূটনৈতিক চাল

কারাকোরাম পাসের উত্তর-পূর্বে প্রায় ২৫০ কিলোমিটার দূরে চিনের হোটান বায়ুসেনা ঘাঁটি রয়েছে। লাদাখের প্যাংগং হ্রদের ৪ নম্বর ফিঙ্গার এলাকা থেকে ওই বিমানঘাঁটির দূরত্ব মাত্র ৩৮০ কিলোমিটার। সেখান থেকেই মূলত ওই যুদ্ধবিমানগুলির মহড়া চালাচ্ছে চিন সেনা। সবচেয়ে উদ্বেগের বিষয় এটাই যে ওই বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন যুদ্ধবিমানগুলো রাডারে ধরা পড়ে না। বিশেষজ্ঞদের মতে, ভারতীয় যুদ্ধবিমান রাফালের সঙ্গে টক্কর দিতে H-20 যুদ্ধবিমানগুলিকে চিন তাদের বায়ুসেনার অন্তর্ভুক্ত করতে চলেছে।

আরও পড়ুন: এক সমুদ্রকন্যা ও তার সমুদ্র-সুতো তৈরির গল্প

কিছুদিন আগেও ভারতের সীমান্তে চিনের অন্তত ২২টি যুদ্ধবিমান মহড়া চালিয়েছিল। লালফৌজের ওই J-16 যুদ্ধবিমানগুলি আধুনিকীকরণের পর হুটান, গারিগুনসা ও কাশগড় বায়ুসেনা ঘাঁটি থেকে আকাশে পাড়ি দেয়। যদিও চিন-সেনাদের ভারতীয় ভূখণ্ডের দিকে অগ্রাসন হওয়ার ওপর কড়া নজর রেখেছে ভারতীয় সেনা।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *