Latest News

Popular Posts

স্থলভাগের আরও কাছে ‘গুলাব’ ওড়িশা-অন্ধ্রপ্রদেশে চলছে যুদ্ধকালীন তৎপরতা

স্থলভাগের আরও কাছে ‘গুলাব’ ওড়িশা-অন্ধ্রপ্রদেশে চলছে যুদ্ধকালীন তৎপরতা

Mysepik Webdesk: যত সময় যাচ্ছে, অন্ধ্র উপকূলের স্থলভাগের দিকে এগোচ্ছে ‘গুলাব’। আজ, রবিবার বিকালেই কলিঙ্গপত্তনামে ল্যান্ডফল। সেই সময় ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ৯০ কিলোমিটার। বড় বিপদের আশঙ্কায় ইতিমধ্যেই ওড়িশা উপকূল থেকে স্থানীয় বাসিন্দাদের সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ শুরু করেছে রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর। ঘূর্ণিঝড়ের মোকাবিলায় শনিবার থেকেই অন্ধ্র প্রদেশের উত্তর অংশে এবং পার্শ্ববর্তী ওড়িশার দক্ষিণ উপকূলে কমলা সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর এনকাউন্টারে জম্মু-কাশ্মীরে খতম দুই জঙ্গি

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সবথেকে বেশি ক্ষতি হতে পারে শ্রীকাকুলাম সম্পেটা বিজয় নগরম এবং গঞ্জাম জেলার বিভিন্ন অংশে। আজ সকাল থেকেই ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি দক্ষিণ ওড়িশা ও উত্তর অন্ধ্র প্রদেশ উপকূলে জেলাগুলিতে। আগামীকাল ও ভারী বৃষ্টি চলবে ওড়িশা অন্ধ্রপ্রদেশ তেলেঙ্গানা ছত্রিশগড় বিদর্ভে। আগামী কয়েকদিন গুজরাট কঙ্কন গোয়া সৌরাষ্ট্র কচ্ছ মহারাষ্ট্র ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস।

আরও পড়ুন: সুখবর! পুজোর আগে বেশ কিছুটা কমল করোনা সংক্রমণ

অন্যদিকে, ওড়িশা সরকারের তরফে ইতিমধ্যেই সাতটি জেলায় উদ্ধারকারী দল পাঠানো হয়েছে। মূলত গঞ্জম ও গজপতিতেই ঘূর্ণিঝড়ে সবথেকে বেশি ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। সগঞ্জম, গজপতি, রায়গড় ও কোরাপুটের জেলাশাসকদের জেলার বাসিন্দাদের জন্য যাবতীয় সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  এই অঞ্চলগুলিতে ভূমিধস নামতে পারে বলে কাঁচা বাড়ির বাসিন্দাদের অনত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ওড়িশা বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর (ODRAF) ৪২টি দল এবং জাতীয় বিপর্য়য় মোকাবিলা দফতরের ২৪টি দল প্রস্তুত রয়েছে। এছাড়াও দমকল বিভাগের ১০২টি দলকেও গজপতি, গঞ্জম, রায়গড়, কোরাপুট, মালকানগিরি, নবরংপুর ও কান্দামাল জেলায় ইতিমধ্য়েই পাঠানো হয়েছে।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *