রাজস্থানে কৃষকদের সমর্থনে কংগ্রেস, আগামীকাল ভারত বন্‌ধকে সমর্থন অনেকাংশে

Mysepik Webdesk: কৃষক আন্দোলন সম্পর্কে রাজস্থানে এখন অবধি শান্ত ছিল কংগ্রেস। তবে এখন তারা এগিয়ে আসতে শুরু করেছে। কংগ্রেসের অগ্রণী সংগঠনগুলিও কৃষকদের বিক্ষোভকে সমর্থন করছে। রাজ্যের কংগ্রেস নেতারা কৃষকদের সঙ্গে আলোচনার কর্মসূচিও শুরু করেছেন। যার মধ্যে পিসিসি প্রধান গোবিন্দ সিং দোতসারা জেলা পরিদর্শন করবেন এবং কৃষকদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন বলে খবর।

আরও পড়ুন: কৃষকরা যা যা পেরিয়ে আসছেন

রবিবার চুরুর বীরমাসার গ্রামে কিষান সংবাদ কর্মসূচিতে রাজ্য সভাপতি দোতসারা বলেছিলেন যে, “নরেন্দ্র মোদি প্রথমবার যখন প্রধানমন্ত্রী হন, সেই সময় তিনি বলেছিলেন দ্বিতীয়বার এখানে এসে জনগণের কাছে প্রতিটি কাজের হিসাব দেবেন। কিন্তু কোথায় সেই প্রতিশ্রুতি? মোদিকে জবাবদিহি করতে হবে।” পিসিসি প্রধান দোতসারা আরও বলেন যে, “৮ ডিসেম্বর ভারত বন্‌ধকে কংগ্রেস সমর্থন করেছে। রাহুল গান্ধি ক্রমাগত কৃষকদের পক্ষে আওয়াজ তুলছেন। প্রদেশ কংগ্রেস কমিটি ভারত বন্‌ধকে সমর্থন করে।”

আরও পড়ুন: কৃষক আন্দোলনের নেতৃত্বে থাকা হান্নান মোল্লার বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিশের এফআইআর

অন্যদিকে এসএফআইয়ের জেলা সভাপতি মহেশ পালিওয়াল জানিয়েছেন, জেলার শিক্ষার্থীরা আগামী ৯ ডিসেম্বর দিল্লি রওনা দেবেন। এর আগে রবিবার এসএফআই কৃষকদের সমর্থনে কালেক্টরি ঘেরাও করে। এসএফআইয়ের রাজ্য সভাপতি সুভাষ জখর বলেছেন, “কেন্দ্রীয় সরকার বেসরকারি সংস্থাগুলির কাছে সরকারি ক্ষেত্রগুলিকে বিক্রি করে দেশকে ধ্বংস করতে ব্যস্ত। এখন তিনটি অধ্যাদেশ বা অর্ডিন্যান্স জারি করে কৃষকদের চাষ ও জমি নষ্ট করার ষড়যন্ত্র চলছে।”

আরও পড়ুন: কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় কৃষকরা, বাড়ছে ক্ষোভ

রাজ্য সভাপতি ও অল ইন্ডিয়া কিষান সভা ও অল ইন্ডিয়া ক্ষেত মজদুর ইউনিয়নের প্রাক্তন বিধায়ক পামারাম ৮ ডিসেম্বর প্রস্তাবিত ভারত বন্‌ধকে সমর্থন করেছেন। তিনি বলেন, “কৃষকদের স্বার্থে রাজ্যের কৃষকরা চুপ করে বসে থাকবে না। ১০ ডিসেম্বর রাজ্যের কৃষকরাও দিল্লি রওনা হবেন। গ্রাম ধানিতে এরজন্য ব্যাচ তৈরি করা হয়েছে।” জেলা আহ্বায়ক রামরতন বাগদিয়া বলেছেন যে, “সিকার কৃষক কোনও পরিস্থিতিতে মাথানত করবে না।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *