ফৌজদারি মামলা তুচ্ছ, খুনের চেষ্টারও অভিযোগ রয়েছে মোদির মন্ত্রিসভার একাধিক মন্ত্রীর নামে

Mysepik Webdesk: গত ৭ জুলাই অর্থাৎ বুধবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মন্ত্রীসভায় একাধিক রদবদল হয়েছে। নতুন মন্ত্রীসভায় স্থান দেওয়া হয়েছে একাধিক শিক্ষিত তরুণ সাংসদদের। পদত্যাগ করতে বলা হয়েছে বেশ কয়েকজন প্রবীণ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে। তবে, সম্প্রতি এমন একটি রিপোর্ট প্রকাশ্যে এসেছে, যা রীতিমতো অস্বস্তিতে ফেলতে পারে কেন্দ্রীয় সরকারকে। অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মস (Association for Democratic Reforms) -এর ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, নয়া কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অন্তত ৪২ শতাংশ মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা ঝুলছে।

আরও পড়ুন: তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আগে দেশজুড়ে ১৫০০ অক্সিজেন প্ল্যান্ট নির্মাণের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

ADR-এর ওই রিপোর্টে আরও জানানো হয়েছে, ৭৮ জন মন্ত্রীর মধ্যে ৩৩ জন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা তো রয়েছেই ,এছাড়াও ২৪ জন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে আরও গুরুতর মামলা ঝুলছে। যার মধ্যে রয়েছে খুন, খুনের চেষ্টা অথবা লুঠপাঠ চালানোর মতো অপরাধের মামলাও। এঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন আলিপুরদুয়ারের সাংসদ জন বার্লা। বাংলা ভাগের আওয়াজ তোলা এই মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ৯টি গুরুতর মামলা ছাড়াও অন্যান্য আরও ৩৮ টি মামলা রয়েছে। অন্যদিকে কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামাণিকের বিরুদ্ধেও রয়েছে ১১টি পৃথক মামলা।

আরও পড়ুন: দিল্লির সিবিআই হেড কোয়ার্টারে অগ্নিকান্ড

এছাড়াও কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভায় পাঁচ মন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে সাম্প্রদায়িকতা উস্কে দেওয়া ছাড়াও ৭ মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ভোটের সময় অবৈধভাবে আর্থিক সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। অন্যদিকে আর্থিক অবস্থার বিচারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার ৭৮ মন্ত্রীর মধ্যে ৭০ জন মন্ত্রীই কোটিপতি। তাঁদের মধ্যে চার মন্ত্রীর সম্পত্তিই নাকি ৫০ কোটি টাকারও বেশি।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *