বুধবার দুপুরের আগেই আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় যশ, কোথায় কতক্ষন ধরে ল্যান্ডফল, জানুন বিস্তারিত

Mysepik Webdesk: ঘূর্ণিঝড় যশ-এর সুপার সাইক্লোনে পরিণত হতে আর মাত্র কয়েকঘন্টা বাকি। আবহাওয়াবিদদের মতে আগামী ১২ ঘণ্টায় সেটি আরও শক্তি বাড়িয়ে দ্রুত ধেয়ে আসবে স্থলভাগের দিকে। আবহাওয়া দপ্তরের অনুমান, আগামীকাল অর্থাৎ বুধবার সকাল আটটা নাগাদ যশ ল্যান্ডফল প্রক্রিয়া শুরু করবে। তারপরেই সেটি ওড়িশার ভদ্রকের চাঁদবালি ধরমা বন্দরে আছড়ে পড়তে পারে। অন্তত দু’ঘন্টা ধরে চলবে ল্যান্ডফল প্রক্রিয়া। ঘূর্ণিঝড়ের চোখ ১১টা থেকে ১ টা মধ্যে বাংলার উপকূলবর্তী অঞ্চলের উপর দিয়েই যাবে বলেই মনে করা হচ্ছে। এর প্রভাবে বাংলার উপকূলবর্তী এলাকা এবং উত্তর ওড়িশায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন: যশ মোকাবিলায় দিঘায় নামল সেনা

আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, তাদের অনুমান অনুযায়ী সাইক্লোনটি উত্তর অভিমুখী হয়ে পারাদ্বীপ ও সাগরের মধ্যবর্তী অঞ্চল দিয়ে যাবে। ফলে ওই অঞ্চলে অতিভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ওড়িশা হয়ে সাইক্লোনটি ঝাড়খণ্ড অভিমুখে রওনা হতে পারে। তারপরেই সেটি ধীরে ধীরে তাঁর শক্তি ক্ষয় করবে। সাইক্লোন যশ আছড়ে পড়ার সময়ে ঝড়ের গতিবেগ থাকবে ১৫৫ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার। দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা ও পূর্ব মেদিনীপুরে অন্তত ১২০ থেকে ১৪৫ কিলোমিটার বেগে হাওয়া চলতে পারে। এছাড়াও কলকাতায় ঝড়ের গতিবেগ থাকবে ৬৫-৮৫ কিলোমিটারের মধ্যে।

আরও পড়ুন: দিঘা থেকে মাত্র ৪২০ কিলোমিটার দূরে যশ, কতটা প্রভাব বাংলায়?

ইতিমধ্যেই দিঘা, শঙ্করপুর, সাগর, বকখালীতে ভারী বৃষ্টিপাত ও হওয়ার দাপট শুরু হয়ে গিয়েছে।ঐসব এলাকার বাসিন্দাদের দ্রুত সাইক্লোনে সেন্টারে স্থানান্তরিত করার বাবাঅস্থা করা হচ্ছে। এলাকার বিধায়কদের চব্বিশ ঘণ্টা তৎপর থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি তাদের সর্বক্ষণ কন্ট্রোলরুমের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যশের মোকাবিলায় ইতিমধ্যে উপকূলবর্তী এলাকায় আধাসেনা ও জাতীয় বিপর্যয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *