Latest News

Popular Posts

সেকেন্ড ওয়েভে টেস্টের তুলনায় দৈনিক কোভিড টেস্ট এখন অর্ধেক, দেশে নতুন সংকটের আশঙ্কা

সেকেন্ড ওয়েভে টেস্টের তুলনায় দৈনিক কোভিড টেস্ট এখন অর্ধেক, দেশে নতুন সংকটের আশঙ্কা

Mysepik Webdesk: ২৯ অক্টোবরের পর প্রতিদিনই দেশে নতুন করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৩ হাজার স্পর্শ করতে পারেনি। অনেকেই মনে করছেন, দেশ থেকে হয়তো নির্মূল হতে চলেছে করোনা। কিন্তু এমন ধারণা হানিকারক হতে পারে। মানুষ এমন ধারণার বশবর্তী হয়ে অসতর্কতামূলক কাজ করতে পারে। ইতিমধ্যেই পথেঘাটে, বাসে, ট্রেনে কিংবা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে মাস্কহীন দেখা যাচ্ছে মানুষজনকে। এদিকে তথ্য হল, করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গের সময় অর্থাৎ চলতি বছরের এপ্রিল-মে মাসে প্রতিদিন করোনা টেস্টের সংখ্যাটা যা ছিল, এখন সেই টেস্ট হচ্ছে সেই সংখ্যার প্রায় অর্ধেক।

আরও পড়ুন: আফগানিস্তান ইস্যুতে ভারতের ডাকা বৈঠকে যোগ দিচ্ছে রাশিয়া-ইরান, থাকছে না পাকিস্তান

এপ্রিল মাসে গড়ে প্রতিদিন ১৮ লক্ষ, মে মাসে ১৯.৫ লক্ষ এবং জুনে প্রতিদিন গড়ে ১৯ লক্ষ কোভিড টেস্ট হয়েছিল। কিন্তু ৩১ অক্টোবর থেকে ৫ নভেম্বরের মধ্যে কোনও দিনেই কোভিড টেস্ট ১১ লক্ষে পৌঁছয়নি। আরেক উদ্বেগজনক বিষয় হল, সারাবিশ্বে পরিসংখ্যানের নিরিখে আরটিপিসিআর-এর এই দেশে কমছে। এপ্রিল থেকে জুনের মধ্যে আরটিপিসিআর-এর সংখ্যাটা ছিল ৭০% এবং র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট ছিল ৩০%। কিন্তু ২৯ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত সরকারি তথ্য অনুযায়ী, আরটিপিসিআরের অংশ ৮% থেকে কমে এখন ৬২%-এ নেমে এসেছে।

আরও পড়ুন: জ্বালানি তেলের ওপর এখনও VAT কমায়নি বাংলা-সহ এই ১৪টি রাজ্য, তালিকা প্রকাশ কেন্দ্রের

প্রোটোকল হল, পজিটিভ ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা মানুষের অ্যান্টিজেন টেস্ট করা। করোনার উপসর্গ থাকলে অবশ্যই RTPCR করাটাই প্রোটোকলের মধ্যে পড়ে। তবে এই মুহূর্তে বেশিরভাগ রাজ্যে শুধুমাত্র যাঁরা সেন্টারে আসছেন, তাঁদেরই টেস্ট করা হচ্ছে। এমন সব পরিসংখ্যান কিন্তু ভাবাচ্ছে। এর ফলে নতুন সংকটের আশঙ্কাও তৈরি হয়েছে।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *