কৃষক আন্দোলনের নেতৃত্বে থাকা হান্নান মোল্লার বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিশের এফআইআর

Farmers

Mysepik Webdesk: ৪ ডিসেম্বর শুক্রবার কৃষক আন্দোলন ১০ দিনে পড়ল। কেন্দ্রের তিনটি নয়া কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে পঞ্জাবের একাধিক কৃষক সংগঠনের ডাকে কৃষকদের ‘দিল্লি অভিযান’ শুরু হয়। এদিকে কৃষক বিক্ষোভের মাঝেই সারা ভারত কৃষক সভার সাধারণ সম্পাদক হান্নান মোল্লার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হল। দিল্লি পুলিশের দায়ের করা এফআইআরের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের উলুবেড়িয়ার প্রাক্তন সিপিআইএম সাংসদ। দিল্লি ও হরিয়ানার সীমানা সিংঘু বর্ডারে হান্নান মোল্লা-সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা ক্রমাগত অবরোধ চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে নেতা হান্নান মোল্লা ছাড়া আর কার কার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে, তা এখনও জানা যায়নি।

আরও পড়ুন: ১.৪ লক্ষ শূন্যপদে চাকরি দিচ্ছে ভারতীয় রেল, পরীক্ষা শুরু আগামী ১৫ ডিসেম্বর থেকে

এদিকে, ১২ লক্ষের উপর কৃষক এখন দিল্লি-হরিয়ানা সীমানায় রয়েছেন। পঞ্জাবের কৃষক সংগঠনগুলির ডাকা ‘দিল্লি চলো’ অভিযানে ব্যাপক সাড়া মিলছে। এই আন্দোলন এখন আর পঞ্জাব বা হরিয়ানার গণ্ডিতে সীমাবদ্ধ নেই। সারা ভারত কৃষক সভাও তাতে শামিল হয়। ফলে, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কেন্দ্রের নয়া কৃষি আইন বিরোধী জনমত জোরদার হচ্ছে। বিগত কয়েক দিনে দিল্লি ও হরিয়ানা পুলিশ নানা ভাবে এই আন্দোলন বন্ধ করার চেষ্টা করে। ব্যারিকেড তুলে, কাঁটাতার বিছিয়ে, জলকামান দেগে, কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়ে আবার কখনও লাঠিপেটা করেও কৃষক বিক্ষোভ দমনের চেষ্টা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: দেশে আরও বাড়লো সুস্থতার হার, ছাড়াল ৯০ লক্ষের গন্ডি

এর মধ্যে ১ ডিসেম্বর এবং ৩ ডিসেম্বর দু-দফায় কৃষক নেতাদের সঙ্গে কেন্দ্রের বৈঠক হয়েছে। তবে বৈঠকে কোনও রফাসূত্র বেরোয়নি। আগামীকাল অর্থাৎ ৫ ডিসেম্বর ফের কেন্দ্রের সঙ্গে কৃষক নেতাদের বৈঠক রয়েছে। কেন্দ্রের উদ্দেশে কৃষক নেতাদের আর্জি, প্রয়োজনে সংসদের বিশেষ অধিবেশন ডেকে নয়া কৃষি আইন প্রত্যাহার করুন। কেন্দ্রীয় সরকার অবশ্য তেমন কোনও ইঙ্গিত এখনও দেয়নি।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *