চলে গেলেন দিলীপ কুমার

Mysepik Webdesk: মুম্বইয়ের হিন্দুজা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন গত ৩০ জুন। বার্ধক্যজনিত সমস্যা নিয়ে। অনুরাগীদের আশা ছিল, এবারও তিনি ফিরে আসবেন সমস্ত রোগ-ব্যাধির মুখে ছাই দিয়ে। কিন্তু এবার শেষরক্ষা হল না। ভারতীয় হিন্দি সিনেমার লিজেন্ড দিলীপ কুমার চলে গেলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর।

আজ সকাল সাড়ে ৭টায় তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। দিলীপ কুমারকে শ্বাসকষ্টের কারণে ২৯ জুন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। বর্ষীয়ান এই অভিনেতা দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। দিলীপ কুমারের পারিবারিক বন্ধু ফয়জল ফারুকি এদিন টুইটারে অভিনেতার মৃত্যুর কথা জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন— “খুব ভারী মন নিয়ে বলতে হবে যে, দিলীপ সাব আর আমাদের মধ্যে নেই।” দিলীপ কুমারের মৃত্যু সংবাদ পাওয়া মাত্রই বলিউডে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সমস্ত তারকা তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করছেন। দিলীপ কুমারের আসল নাম মহম্মদ ইউসুফ খান। তাঁর জন্ম ১৯২২ সালের ১১ ডিসেম্বর। তিনি হিন্দি সিনেমায় ‘দ্য ফার্স্ট খান’ নামে পরিচিত।

দিলীপ কুমার ১৯৪৪ সালে বোম্বাই টকিজের প্রযোজনা ‘জোয়ার ভাটা’ ছবি দিয়ে অভিনয় জীবন শুরু করেছিলেন। প্রায় পাঁচ দশকের অভিনয় জীবনে ৬৫টিরও বেশি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন। দিলীপ কুমার অভিনীত উল্লেখযোগ্য কয়েকটি চলচ্চিত্র হল ‘আন্দাজ’ (১৯৪৯), ‘আগ’ (১৯৫২), ‘দাগ’ (১৯৫২), ‘দেবদাস’ (১৯৫৫), ‘আজাদ’ (১৯৫৫), ‘মুঘল-ই-আজম’ (১৯৬০), ‘গঙ্গা যমুনা’ (১৯৬১), ‘রাম অর শ্যাম’ (১৯৬৭) ইত্যাদি। ১৯৭৬ সালে দিলীপ কুমার অভিনয়ের জগতে কাজ থেকে পাঁচ বছরের বিরতি নিয়েছিলেন। এর পরে ১৯৮১ সালে, তিনি ‘ক্রান্তি’ ছবির মাধ্যমে প্রত্যাবর্তন করেন। এর পরে ‘ভো শক্তি’ (১৯৮২), ‘মশাল’ (১৯৮৪), ‘করমা’ (১৯৮৬), ‘সওদাগর’ (১৯৯১)-এর মতো সিনেমায় অভিনয় করেন। তাঁর শেষ ছবিটি ছিল ‘কিলা’, যা ১৯৯৮ সালে মুক্তি পায়।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *