বিশ্বভারতীর পাঁচিল-কাণ্ডে তদন্তে জেলা পুলিশ

Visva Bharati 01

বোলপুর, ১২ সেপ্টেম্বর: বিশ্বভারতীর পাঁচিল-কাণ্ডে এবার তদন্তে নামল জেলা পুলিশ। শনিবার জেলা পুলিশের তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল বিশ্বভারতীর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে এ বিষয়ে উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর সঙ্গে কথা বলেন। ১৭ আগস্ট কেন্ত্রীয় কার্যালয়ের পাশে ও শান্তিনিকেতন থানার সামনে ভুবনডাঙা মেলার মাঠে পাঁচিল দেবার প্রতিবাদে কয়েক হাজার মানুষ জড়ো হয়। তখন উত্তেজিত জনতা পাঁচিল দেবার উপকরণ সিমেন্ট, ইট সব ছুড়ে ফেলে দেয়। মেলার মাঠের পুরনো একটি গেটও জেসিবি মেশিন দিয়ে ভেঙে দেওয়া হয়। ভেঙে ফেলা হয় মেলার মাঠে পাঁচিল দেবার জন্য অস্থায়ী ক্যাম্প অফিস। তুলকালাম হয়ে ওঠে শান্তিনিকেতন। ঘটনার জেরে পুলিশ ৮ জনকে গ্রেপ্তার করে।

আরও পড়ুন: খুশির খবর: ভারতে ইলিশ রপ্তানিতে ছাড়পত্র দিল বাংলাদেশ

বিশ্বভারতীর পরিবেশ স্বাভাবিক করতে দিন তিনেকের মধ্যে রাজ্য সরকারের নির্দেশে বীরভূমের জেলাশাসক মৌমিতা গোদরা বসু জেলা পুলিশ সুপার শ্যাম সিংকে সঙ্গে নিয়ে বিশ্বভারতী সহ আশ্রমিক, ছাত্রছাত্রী, ব্যবসায়ী সহ সব পক্ষকে নিয়ে বোলপুর মহকুমা শাসকের কার্যালয়ে বৈঠক ডাকে। কিন্তু সেদিন বিশ্বভারতীর তরফে কোনও প্রতিনিধি যোগ দেননি। তারপর বিশ্বভারতী বন্ধ হয়ে যায়। এদিকে পাঁচিল-কাণ্ডে ইডি তদন্তে নামে। ইডির সদস্যরা বিশ্বভারতীর সঙ্গে কথা বলে। তারপর জেলা পুলিশ আজ ফের তদন্তে নামল।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *